অনুপ্রবেশের মামলায় জামিন দিলেও, ৫৪ ধারায় করা মামলায় কারাগারে সাংবাদিক কাজল

124

সুপ্রভাত বগুড়া (জাতীয়): নিখোঁজের ৫৩ দিন পর উদ্ধার হওয়া ফটোসাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলায় জামিন দিলেও ৫৪ ধারার নতুন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আজ (রোববার) বেলা ৩টার দিকে সাংবাদিক কাজলকে যশোর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে আনা হয়। বিকাল চারটার পর শুনানি শুরু হয়।

কাজলের আইনজীবী সুদীপ্ত ঘোষ জানান, যশোর কোর্ট থানায় বিজিবির দায়ের করা অবৈধ অনুপ্রবেশ মামলায় তাকে জামিন দিয়েছেন যশোরের আমলী আদালতের (শার্শা) বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম।

তবে যশোর কোতোয়ালি থানার ৫৪ ধারায় দায়ের করা অন্য একটি মামলায় তাকে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারাগারে তাকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে শফিকুল ইসলাম কাজলকে শনিবার রাতে বেনাপোল থেকে উদ্ধার করা হয়। বোনাপোল পোর্ট থাকার কর্মকর্তা জানান, রাতে নারায়ণগালী এলাকা থেকে বিজিবি কাজলকে উদ্ধার করে।

রোববার ভোরে বিজিবি কাজলকে পোর্ট থাকায় তাকে হস্তান্তর করেন। তবে তাকে কিভাবে পাওয়া গেলো এবিষয়ে কিছু জানা যায়নি। তিনি সুস্থ আছেন বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

ফটোসাংবাদিকতার পাশাপাশি ‘পক্ষকাল’র সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করছিলেন শফিকুল ইসলাম কাজল। গত ১০ মার্চ বুধবার দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে বাসা থেকে বের হন।

আনুমানিক রাত ৮টার থেকে তার দু’টি মুঠোফোনই বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর থেকে তাঁর কোনও সন্ধান না পেয়ে পরদিন ১১ মার্চ চকবাজার থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তার স্ত্রী জুলিয়া ফেরদৌসি নয়ন।

১৩ মার্চ জাতীয়  প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে কাজলকে সুস্থ অবস্থায় ফেরত দেয়ার দাবি জানায় তার পরিবার। এরপর থেকে তিনি আর বাড়ি ফিরে আসেননি।