অবাক করা কিছু তথ্য গাঁজা সেবন সম্পর্কে

58

সুপ্রভাত বগড়া (স্বাস্থ্য কণিকা): বিশ্বজুড়ে গাঁজা নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে ।কেউ বলছেন গাঁজা মানুষের ক্ষতি করছে আবার কেউ বলছে গাঁজা মানব দেহের জন্য উপকারি।

তাহলে চলোন আজ গাঁজার সত্যিকারের রহস্যটা জেনে নেওয়া যাক।অনেক দিন থেকেই  চিকিৎসা বিজ্ঞানের নানা বিভাগ এই মারিজুয়ানা (গাঁজা) নিয়ে গবেষণা করে আসছে।আজ সেই সব গবেষণা থেকে তুলে ধরব গাঁজা সেবনে শরীরের যে ৫ রকম প্রতিক্রিয়া ঘটে তার  তথ্য।

১| অনেকেই ধারণা করেন ক্যান্সার নিরাময়ে গাঁজা গুরুত্ব আছে। কিন্তু আপনি শুনলে এবার আঁতকে উঠতে পারেন এক গবেষণার ফলাফল শুনে। 

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় অবস্থিত সাউদার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের গবেষণায় দেখা যায় গাঁজা সেবনে পুরুষের অণ্ডকোষে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে।

 

২| আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের গবেষণায় দেখা যায় মানুষের শরীরের ধমনী ও শিরা অনেকাংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয় গাঁজা সেবনে।

সিগারেটের মত করে গাঁজা ধোয়া নেওয়ার ফলেও ক্ষতিগ্রস্ত হয় মানুষের স্বভাবিক রক্ত চলাচল সিস্টেম।

৩| নর্থওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন বিজ্ঞানীর গবেষণায় পাওয়া যায় , গাঁজা মানুষের স্মৃতিশক্তি নষ্ট করে দেয়। গাঁজা গ্রহণের ফলে অধিকাংশ মানুষের বেশি সময় ধরে কোনো কিছু মনে রাখতে পারে না।

অর্থাৎ কোনো কিছু মনে রাখার মত শক্তি তাদের নষ্ট হয়ে যেতে থাকে। তবে হ্যাঁ, এ বিষয়ে এখনো অনেক গবেষণা চলছে।

৪| টানা ২০ বছরেরে একটি মনোবিজ্ঞান গবেষণায় দেখা যায় গাঁজা মস্তিষ্কের কোষ ধ্বংস করে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে।

৫| এতো দিন ধরে আমারা জেনে এসেছি, গাঁজা মানুষের সৃজনশীল কাজে ব্যাপক সহায়তা করে। কিন্তু আমাদের এই জানা কথা একেবারেই ভুল প্রমাণিত করেছে নেদারল্যান্ডের গাঁজা বিষয়ের একটি জরিপ।

তাদের সেই জরিপ দেখা যায়, গাঁজা মানুষের সৃজনশীল ক্ষমতাকে নিস্তেজ করে দেয়।