অবৈধ অভিবাসীদের ঢলে দিশেহারা ইতালি!

37

সুপ্রভাত বগুড়া (আন্তর্জাতিক): ইতালিতে প্রায় প্রতিদিনই অবৈধ অভিবাসীদের ঢল অব্যাহত রয়েছে। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিরোধীদল বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। দ্বীপ শহর সিসিলির লাম্পেদুসায়। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। অনুপ্রবেশকারীদের মধ্যে তিউনিসিয়ার ৮০ জনকে একটি বিশেষ ফ্লাইটে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে আসা অবৈধ অভিবাসীদের ঢল কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না। প্রায় প্রতিদিনই লিবিয়া এবং তিউনিসিয়া থেকে শত শত অভিবাসী আসছে ইতালিতে। অভিবাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে আস্থাভোটে ক্ষমতা হারানো সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনির দল লেগা নর্থ এবার রাজপথে নেমেছে।

এ বিষয়ে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্বেও সালভিনী বলছেন,  ‘যেখানে আমরাই কষ্টে আছি, অনেক মানুষের কাজ নাই, মাস্ক আর সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হচ্ছে সেখানে আমরা মানতে পারছি না যে গত দুই মাসে এতো শরণার্থী ইতালি প্রবেশ করেছে, আর নিশ্চিন্তে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

৬ কোটি ইতালীয়দের পক্ষ থেকে আমি সরকারকে বলছি যেন ইতালিতে আর কাউকেই প্রবেশ করার অনুমতি না দেওয়া হয়। দ্বীপটিতে এখন অবৈধ শরণার্থীর “বিস্ফোরণ” ঘটেছে’ দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী লামরজেজে জানান, এখন যারা ইতালিতে প্রবেশ করছে তাদের অনেকেই এনজিওর সহযোগিতা ছাড়াই প্রবেশ করছে তাই এদের বাধা দেওয়াটা কঠিন হয়ে পড়েছে।

তিনি বলেন, প্রতিদিনই লাম্পেদুসা দ্বীপটিতে শত শত শরণার্থী আসছে ছোট ছোট নৌকা করে। আমাদের জলসীমায় প্রবেশের পর মানবিক কারণেই তাদের জীবন রক্ষার দায়িত্ব এসে পরে। এটা সত্য যে দ্বীপটিতে অবৈধ শরণার্থীর “বিস্ফোরণ” ঘটেছে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি এই ঢল থামাতে এবং ইতিমধ্যে অনেককেই ফেরত পাঠানো হয়েছে।

গত ১৫ আগস্ট অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হবার আবেদনের শেষ তারিখ পেরিয়ে গেলেও অভিবাসীদের ইতালি গমন অব্যাহত রয়েছে। ১৬ আগস্ট থেকে ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৪ হাজার ৭৩৮ জন অবৈধ অভিবাসী প্রবেশ করেছে।