আজ অনলাইনে মুক্তি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “শাটল ট্রেন”

62

সুপ্রভাত বগুড়া (বিনোদন): চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গর্বের দুটো জিনিসিই আছে, একটি হলো শাটল ট্রেন আর একটি হলো ঝুপড়ি। শিক্ষার্থীদের মাঝে মুখরোচক কথা প্রচলিত আছে। সেটি হলো- চবিতে পড়বেন আর শাটলে চড়বেন না তা কি হয়!

শাটল ট্রেনের প্রতিটি বগির রয়েছে আলদা আলাদা নাম। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন যেন একটি মঞ্চ। আর এই মঞ্চের শিল্পী হলেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন আসা যাওয়ার সময় বগির দেয়ালে ‘ড্রাম’ চাপরিয়ে উচ্চস্বরে গান গেয়ে সারা বগি মাতিয়ে রাখে।

আর এ বগিতেই গান গাইতে গাইতে শিল্পী হয়ে উঠেছেন অনেকেই। তাদের মধ্যে আজ দেশের অন্যতম তারকাশিল্পী হলেন নকীব খান, পার্থ বড়ুয়া, এসআই  টুটুলসহ আরও অনেকেই।

শুধু গান নয় এই ট্রেনকে ঘিরে গড়ে ওঠেছে হাজারও গল্পকথা অনেক প্রেমকাহিনী। শাটল ট্রেন আর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় একসূত্রে গাঁথা। এই শাটল ট্রেনকে কেন্দ্র করেই রচিত হয় এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাসি-কান্না বা প্রেম-ভালোবাসা ও আনন্দ-বেদনার মহাকাব্য।

এই মহাকাব্যের কিছু সময়, কিছু ঘটনা আর অনুভূতি নিয়ে নির্মিত হচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘শাটল ট্রেন’। এই চলচ্চিত্রটি ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় প্রদর্শিত হলেও এই প্রথম ঈদের দিন অনলাইনে মুক্তি পাচ্ছে ‘শাটল ট্রেন’ চলচ্চিত্র।

লাগভেলকি ডট কম একটি অনলাই মুভি প্লাটফর্ম। ইতিমধ্যে চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ি ঈদের দিন থেকে পরবর্তী নব্বই দিন লাগভেলকি ডট কম অনলাই মুভি প্লাটফর্মের মাধ্যমে দর্শকেরা বিশ্বের যে কোনও স্থান থেকে উপভোগ করতে পারবেন এই চলচ্চিত্রটি।

চলচ্চিত্রটিতে মোট ছয়টি মৌলিক গান রয়েছে। এতে অভিনয় করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬তম ব্যাচের ছাত্রী মোহসেনা ঝর্ণার ‘বহে সমান্তরাল’ গল্প অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে এই চলচ্চিত্র।

পরিচালনা করছেন ৩৪তম ব্যাচের চারুকলা বিভাগের সাবেক ছাত্র ও চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রদীপ ঘোষ এবং প্রধান সহকারী পরিচালক রিফাত মোস্তফা।