এনজিও’র লোন নিয়ে মরিচ চাষ। দুর্বৃত্তদের চক্ষুশুলে ভেস্তে গেল স্বপ্ন

140
এনজিও'র লোন নিয়ে মরিচ চাষ। দুর্বৃত্তদের চক্ষুশুলে ভেস্তে গেল স্বপ্ন। ছবি-ওহাব

সুপ্রভাত বগুড়া (আবদুল ওহাব শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : করোনার এই দুর্যোগকালে কাচা মরিচের দাম আকাশ চুম্বী। তাই ধনী হওয়ার আশায় এনজিও থেকে লোন নিয়ে মরিচ চাষ করে ভাগ্য পরিবর্তন ও জীবনকে প্রতিষ্ঠিত করার স্বপ্ত দেখছিলেন বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার খোট্রাপাড়া ইউনিয়নের ঘাষিড়া ডোগলাপাড়া গ্রামের  মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে আবদুল জব্বার৷ মরিচের ফলনও ছিল ভাল।

কিন্তু দুবৃর্ত্তদের রোষানল ও চক্ষুশুলে ভেংগে গেছে  হত দরিদ্র কৃষকের সেই স্বপ্ন। বুধবার ৪ নভেম্বর এমনই হৃদয় বিদারক কথাগুলো জানান ভুক্তভোগী পরিবার৷ তারা জানান, এবার কাচা মরিচের দাম বেশী হওয়ায় দরিধ্র  পিতার মুখের দিকে না তাকিয়ে এনজিও থেকে লোন নিয়ে জীবন গড়ার স্বপ্ন দেখেন জব্বার মিয়া।

তিনি সোয়া এক বিঘা জমিতে  মরিচ চাষাবাদ করেন। ফলনও ভাল হয়। কিন্তু এমতাবস্থায় গ্রামের কয়েক দুর্বৃত্তরা প্রতিহিংসার দাবানলে পুড়তে থাকে। তারা রাতের আঁধারে কৃষকের মরিচের গাছগুলো কর্তন করে দেয়। সাথে সাথে ভেংগে যায় জীবনের স্বপ্ন।  এতে ওই কৃষকের প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

এখন অশ্রুশিক্ত নয়নে বলছে, কিভাবে চলবে সংসার। কেমনে পরিশোধ করবে এনজিওর লোন। দিশেহারা হয়ে এখন দিগন্তপানে আহাজারী ছাড়া তার আর কোন পথ খোলা নেই।।  তবে এ ভটনায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।