এ বার কঙ্গনাকে কটাক্ষে বিঁধলেন পরিচালকের ছোট মেয়ে আলিয়া

16
এ বার কঙ্গনাকে কটাক্ষে বিঁধলেন পরিচালকের ছোট মেয়ে আলিয়া ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (বিনোদন): সুশান্ত সিংহ রাজপুত না থাক, তাঁর আকস্মিক প্রয়াণে জন্ম নেওয়া ‘স্বজনপোষণ’ তরজা কিন্তু বহাল তবিয়তে বর্তমান।

প্রায় প্রতি দিনই নেটাগরিক এবং বলিউড তারকাদের নিশানায় ভট্ট, কর্ণ জোহর, যশরাজ ফিল্মস-সহ বলিউডি পরিচালক, প্রযোজক এবং স্টার কিডরা। তবে স্বজনপোষণ নিয়ে এ পর্যন্ত সব থেকে বেশি মুখ খুলেছেন এবং এখনও খুলছেন কঙ্গনা রানাউত।

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই এক নাগাড়ে মহেশ ভট্ট এবং তাঁর প্রযোজনা সংস্থাকে এক তরফা দোষারোপ করে চলেছেন কঙ্গনা। তাঁর দাবি, মহেশ এবং তাঁর বন্ধু জাভেদ আখতার বলিপাড়ায় মুভি মাফিয়া র‌্যাকেট চালান।

যার শোষণের ফলাফল, সুশান্তের মতো অভিনেতার অকালে ফুরিয়ে যাওয়া।সহ্য করতে না পেরে এক সময় বাবার হয়ে পূজা ভট্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খুলতেই অভিনেত্রী সরাসরি সঙ্ঘাতে জড়িয়ে পড়েন মহেশের বড় মেয়ের সঙ্গে।

এ বার তাঁকে কটাক্ষে বিঁধলেন পরিচালকের ছোট মেয়ে আলিয়া। টুইটারে ক্ষোভ উগরে তাঁর দাবি, ‘‘প্রায় প্রতি দিন কঙ্গনা কিছু না কিছু বলছেনই আমাদের নিয়ে। সবাই সমস্ত কিছু দেখছেন, শুনছেনও।

আমার বিশ্বাস, একদিন সত্যি-মিথ্যের ফারাক সবাই বুঝবেন।’’হঠাৎ কী নিয়ে কঙ্গনার সঙ্গে লাগল আলিয়ার? সোশ্যাল বলছে, কঙ্গনার ধারাবাহিক আক্রমণে বিরক্ত আলিয়ার ধৈর্যের বাঁধ ভাঙতেই সরাসরি ‘কুইন’কে আক্রমণ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, একা আলিয়া নন, গতকাল একটি পোস্টে কঙ্গনাকে উদ্দেশ্য করে মন্তব্য করেন মহেশও।পোস্টে কী লিখেছিলেন মহেশ? তাঁর দাবি, সবার চোখে মহান, আদর্শ মানুষ হওয়ার বিন্দুমাত্র ইচ্ছে তাঁর নেই।

তিনি যেমন ঠিক সে ভাবেই সবার মনে থেকে যেতে চান। যিনি অমরত্ব খুঁজছেন তিনি বরং সবার মনে স্থায়ী হওয়ার জন্য নিজের নামে মনুমেন্ট, এয়ারপোর্ট, ডাকটিকিট বানানোর চেষ্টা করতে পারেন। মহেশ এসবে নেই!

মহেশ তাঁর পোস্টে যদিও কঙ্গনার নাম নেননি। কিন্তু কারও বুঝতে বাকি নেই, তাঁর আসল লক্ষ্য কে? মহেশের এই পোস্ট যেন অনেকটাই জোর এনে দিয়েছে আলিয়ার মনে। নাম না করে তিনিও এরপরেই মন্তব্য ছোঁড়েন ‘থালাইভি’র উদ্দেশ্যে।

কারণ, ‘গাল্লি বয়’-এ অভিনয় করে পুরস্কার পাওয়া নিয়ে আলিয়াকে দোষারোপ করতে ছাড়েননি কঙ্গনা।