কারণে এবং অকারণে মুখমন্ডলে হাত গেলেই অ্যালার্ম দিবে ঘড়ি

35

সুপ্রভাত বগুড়া (জ্ঞান-বিজ্ঞান): স্বাভাবগতভাবে আমরা কারণে এবং অকারণে মুখমন্ডলে হাত দেই। এ স্বাভাবজাত অভ্যাসটা করোনা মহামারীর সময় ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। এ সাধারণ অভ্যাস মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণ হতে পারে।

হাতে থাকা করোনার জীবাণু চোখ, নাক, মুখ দিয়ে শরীরের ভিতরে প্রবেশ করে প্রাণহানি ঘটাতে পারে। তাই মুখমণ্ডলে হাতের স্পর্শ ঠেকাতে একটি বিশেষ ঘড়ি আবিষ্কার করেছে কিশোর ম্যাক্স মেলিয়া (১৫)।

ভিবপ্রো নামের ঘড়িটি অবচেতনভাবে মুখমণ্ডলে হাত দেওয়া বন্ধে সাহায্য করবে। এতে করোনার সংক্রমণ থেকে অনেকাংশে রেহাই পাওয়া যেতে পারে। খবর সিএনএন’র।

যুক্তরাজ্যের নাগরিক ম্যাক্স জানান, করোনা মহামারির যেসব খবর আসছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, সারা বিশ্বের মানুষ একটি বিপর্যয়কর পরিস্থিতির মধ্যে বসবাস করছেন।

তিনি বলেন, ‘আমার মা–বাবা উভয়েই করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত এর ভয়াবহতা বুঝতে পারিনি। এ ভয়াবহতাই আমাকে এ বিষয়ে কাজ করতে উৎসাহ জুগিয়েছে।’

তিনি জানান, হাত নাড়ানোর সময় যদি মুখমণ্ডলের কাছে চলে যায় তাহলে হাতে থাকা ঘড়িতে সতর্কবার্তা বেজে উঠবে। যতবার হাত মুখমণ্ডলের কাছে যাবে ততবারই সতর্কবার্তা দেবে।

বিশেষ প্রযুক্তি ও গাণিতিক পরিভাষার সমন্বয়ে ঘড়িটি আবিষ্কার করা হয়েছে।