কুষ্টিয়ায় বাড়ি ভাড়া না পেয়ে অন্তঃসত্তা নারীকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা ! হত্যার চেষ্টাকারী ঘাতক রনি আটক

179

সুপ্রভাত বগুড়া ডেস্ক: কুষ্টিয়ায় ৯ মাসের অন্তঃসত্তা এক নারীকে পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এই দূর্যোগেও সময় মতো বাড়ি ভাড়া দিতে না পারার জের ধরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।

জুলেখা জেলার মিরপুরের বহলবাড়িয়া এলাকার মেহেদী হাসানের স্ত্রী। এদিকে, হত্যা প্রচেষ্টাকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জান যায়, শহরের কমলাপুর এলাকায় নবীন প্রামানিক স্কুল সংলগ্ন বজলুল হকের বাড়িতে স্বামীর সঙ্গে ভাড়া থাকতো জুলেখা (৩৫) নামের ওই নারী।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালের দিকে জুলেখা তার বাড়ির বাইরে পাশের দুইজন মহিলার সাথে কথা বলছিলেন। এমন সময় হঠাৎ করেই বাড়ির মালিকের বড় পুত্র রোকনুজ্জামান রনি গর্ভবতী ওই মহিলার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

জুলেখার আত্মচিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে রের্ফাড করা হয়।

চিকিৎসক জানান, তার শরীরের প্রায় ৮০ শতাংশের বেশি জায়গা পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ হত্যার চেষ্টাকারী রনিকে আটক করে। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, অন্তসত্বা নারী জুলেখা মিরপুরের বহলবাড়িয়া এলাকার মেহেদী হাসানের স্ত্রী। সে ৯ মাসের অন্তঃসত্তা। বাড়ি ভাড়া নিয়ে ভাড়াটিয়া জুলেখা ও বাড়িওয়ালার স্ত্রীর মধ্যে কাটাকাটি চলছিল।

এক পর্যায়ে রনির সাথে ওই নারীটির হাতাহাতিও হয়। পাষন্ড রনি ক্ষিপ্ত হয়ে অন্তঃসত্তা ওই বধুকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এমন মধ্যযুগীয় বর্বরতার জন্য দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে সচেতন মহল।