গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার আলিগ্রামে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে বিজয় দিবস ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

318
গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার আলিগ্রামে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে বিজয় দিবস ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত। ছবি-শামছুল

সুপ্রভাত বগুড়া (শামসুজ্জামান,গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান এর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্বাধীনতার মাসে মহান বিজয় দিবস ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে ফাইনাল খেলার উদ্বোধন করেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ। ফাইনাল খেলার সভাপতিত্ব করেন শাখাহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ তাহাজুল ইসলাম ভুট্টু।

ফাইনাল খেলায় অংশগ্রহণ করেন বাংলাহিলি ফুটবল একাদশ ও ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশ। খেলা পরিচালনা করেন ভোলানাথ ও সহকারীর দ্বায়িত্ব পালন করেন মিস্টি মাহমুদ ও রায়হান কবির। খেলার ধারাভাষ্য বিবরণ করেন আসাদুজ্জামান আসাদ ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সদস্য সচিব মোঃ রবিউল ইসলাম।

আলীগ্রাম ফুটবল মাঠে  হাজার বিশেক দর্শকের উপস্থিতিতে চলমান ফাইনাল খেলার পূর্বে বাংলাহিলি ফুটবল একাদশ মাত্রাই ফুটবল একাদশকে ১-০ ও ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশ আয়ভাংগী আয়েজাবাদ ফুটবল একাদশকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে।

খেলার প্রথমার্ধে ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশের খেলোয়ার রফিক ১৭ মিনিটে প্রথম গোল করে দলকে ১-০ গোলে এগিয়ে রাখেন। দ্বিতীয়ার্ধের ১৪ মিনিটে ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশের খেলোয়ার পারভেজ তার প্রথম গোল করে দলকে ২-০ গোলে এগিয়ে নেন। আক্রোমণ পাল্টা আক্রোমণের মধ্য দিয়ে খেলা চলতে থাকেন। এক পর্যায়ে ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশের খেলোয়ার লাল কার্ড পেলে ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশ দশজন খেলোয়ারে পরিণত হয়। তবে আর কোন গোল না হওয়ার খেলা ২-০ গোলের ব্যবধানে মীমাংসিত হয় এবং ঘোড়াঘাট মাস্টার ফুটবল একাদশ বিজয়ী হয়।

উক্ত খেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাপমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাষক শাকিল আকন্দ বুলবুল, মাত্রাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আ ন ম শওকত হাবিব তালুকদার লজিক। কামদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শাহেনশাহ ফকির, শাখাহার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম মন্ডল, কামদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  মোঃ মুশফিকুর রহমান চৌধুরী উজ্জ্বল, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক,

শাখাহার ইউপি সদস্য মোঃ মজিদুল ইসলাম পুতুল, শাখাহার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ বাবু মিয়া, শাখাহার ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম মিনু,  গোবিন্দগঞ্জ পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও দৈনিক সূর্যের আলোর সম্পাদক রাশেদ খান মুন, শাখাহার ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি ও দৈনিক সূর্যের আলোর নির্বাহী সম্পাদক মোঃ তারিকুজ্জামান সাগর,

কামদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মোঃ কাজল চৌধুরী, শাখাহার ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি আবু হাসান রাজু, সাধারণ সম্পাদক  ফয়সাল আহম্মেদ, কামদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ লিটন চৌধুরী, রাজাহার ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফ সরকার,

শাখাহার ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক মামুনুর রশীদ মামুন, আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সদস্য সচিব ও দৈনিক সূর্যের আলোর স্টাফ রিপোর্টার হাফিজার রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক ও দৈনিক সুপ্রভাত পত্রিকার প্রতিনিধি মোঃ শামসুজ্জামান, রাজাহার ইউনিয়ন আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের আহ্বায়ক মোঃ মনিরুল ইসলাম।

বিজয়ী দলকে একটি তাজা এঁড়ে গরু ও রানার্সআপ দলকে একটি খাসী উপহার দেওয়া হয়। খেলা শেষে এক বাউল সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। উক্ত বাউল সন্ধ্যায় বাউলগান পরিবেশন করেন বাউলশিল্পী মিন্টু।