জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় কাজ করবে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর ও ইস্টার্ন ব্যাংক

8
জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় কাজ করবে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর ও ইস্টার্ন ব্যাংক

ইবিএল ক্লাইমেট চেইঞ্জ অ্যাডাপটেশন অ্যাওয়ার্ড’ এ একসঙ্গে কাজ করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশের বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ইস্টার্ন ব্যাংক পিএলসি (ইবিএল) এবং যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর। এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশে সফররত মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক ব্যুরোর অ্যাসিস্ট্যান্ট ডোনাল্ড লু এবং ইবিএলের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ শাহীন। রাজধানীর গুলশানে ইএমকে সেন্টারে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আজ বুধবার (১৫ মে) ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশে কর্মরত বিভিন্ন কর্পোরেশন, ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি, এনজিও এবং জলবায়ু কর্মী যারা জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন প্রকল্প এবং বিভিন্ন উদ্যোগ বাস্তবায়নে শ্রেষ্ঠত্ব ও নেতৃত্ব দেখিয়েছে তাদের কাজের স্বীকৃতি ও উদযাপন করতে প্রতি বছর এই পুরস্কার দেওয়া হবে।

Pop Ads

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, পুরস্কার দেওয়া হবে নবায়নযোগ্য শক্তি, পানি সংরক্ষণ, টেকসই কৃষি, নগর এলাকায় সহনশীলতা, জীববৈচিত্র্য সুরক্ষা, দুর্যোগ প্রস্তুতির মতো বিস্তৃত সেক্টর ও থিমের বিভাগে। অ্যাকাডেমিয়া, সুশীল সমাজ, গণমাধ্যম এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে বিচারকদের একটি প্যানেল পুরস্কার বিজয়ীদের নির্বাচিত করবে।

অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লু বলেন, ‘ব্যবসা, সুশীল সমাজ এবং অন্য সবখানে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলার কাজ প্রচারে যুক্তরাষ্ট্র ও ইস্টার্ন ব্যাংক বাংলাদেশের লক্ষ্য অভিন্ন।

আমরা ইবিএল-এর এই গুরুত্বপূর্ণ নতুন ক্লাইমেট চেইঞ্জ অ্যাডাপটেশন অ্যাওয়ার্ড-এ সহযোগিতা করতে উন্মুখ।’
বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বলেছেন, ‘ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ইস্টার্ন ব্যাংকের সঙ্গে এই নতুন অংশীদারিত্ব নিয়ে উচ্ছ্বসিত। ইবিএলকে সহযোগিতা করার মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রমী কাজ করছে এমন ব্যবসা ও সংস্থাগুলোকে স্বীকৃতি দেব। আশা করছি, তা আমাদের এই গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে আরো কাজ করার অনুপ্রেরণা দিতে সাহায্য করবে।


ইবিএলের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহমেদ শাহীন বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী চরম আবহাওয়া আমাদের জলবায়ু অভিযোজন, প্রশমন এবং অর্থায়নে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে। ইবিএল ক্লাইমেট চেইঞ্জ অ্যাডাপটেশন অ্যাওয়ার্ড-এ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের সঙ্গে এই অংশীদারি করতে পেরে এবং রাষ্ট্রদূত ও অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লুর সঙ্গে এই পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপে স্বাক্ষর করার সুযোগ পেয়ে আমরা আনন্দিত।

আহমেদ শাহীন আরো বলেন, ‘অনন্য এই উদ্যোগ সামাজিকভাবে দায়িত্বশীল এবং পরিবেশবান্ধব ব্যাংক হওয়ার আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। আমরা বিশ্বাস করি, এই পুরস্কার অন্যান্যদেরও জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যোগদানে অনুপ্রাণিত করবে, যা আমাদের সময়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জগুলোর মধ্যে একটি।’

ইবিএল ক্লাইমেট চেইঞ্জ অ্যাডাপটেশন অ্যাওয়ার্ড ২০২৪-এর মনোনয়ন প্রক্রিয়া খুব দ্রুতই প্রিন্ট মিডিয়া, ইলেকট্রনিক সংবাদমাধ্যম এবং ইবিএল ওয়েবসাইট এবং সামাজিক মাধ্যমে ঘোষণা করা হবে।

এই পুরস্কারের আনুষ্ঠানিক গণমাধ্যম অংশীদার হিসেবে ছিল দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকা।