জার্মান সরকারের বিরুদ্ধে করোনার নামে স্বৈরাচারী আচরণের অভিযোগ !

84
জার্মান সরকারের বিরুদ্ধে করোনার নামে স্বৈরাচারী আচরণের অভিযোগ! ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (আন্তর্জাতিক): পূর্ব ও পশ্চিম জার্মানি এক হওয়ার ৩০ বছর পূর্তির দিনেও করোনা বিরোধী সমাবেশ হয়েছে জার্মানির রাজধানী বার্লিনে। সমাবেশে সরকারের বিরুদ্ধে করোনার নামে স্বৈরাচারী আচরণের অভিযোগ করেন অংশগ্রহণকারীরা। অক্টোবরের ৩ তারিখটা জার্মানির জন্য সব সময়ের জন্য গৌরবময়।

কারণ ১৯৯০ সালের এই দিনটিতেই এক হয় দুই জার্মানি। ঐক্যের ৩০ বছরের পূর্তির এই দিনটিতেও করোনাবিরোধী সমাবেশ করলেন জার্মানির সাধারণ নাগরিকেরা। রাজধানী বার্লিনে এমন এক সমাবেশে বলা হয় করোনার নামে মেরকেল সরকার সাধারণ নাগরিকদের অধিকার হরণের জাল পাতছে।

বিক্ষোভকারীরা বলেন,  ‘দেখুন করোনা ছিল করোনা আছে, এটা সাধারণ একটা মৌসুমী রোগ, কিন্তু আমাদের রাজনীতিকরা এই সামান্য ভাইরাস জ্বরকে পুজি করে জনগণকে চেপে ধরে ফায়দা লুটার ধান্দা করছে। এটা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।’

সমাবেশে যোগ দিতে আসা অন্যরা অভিযোগের সুরে আরো বলেন, করোনার ভয় দেখিয়ে মেরকেল ও অন্য রাজনীতিকরা শুরু থেকে ভয় দেখিয়ে যাচ্ছে। আমরা সাধারণ নাগরিকেরা জানি কিভাবে মৌসুমী রোগ বা সিজনাল জ্বরের বিরুদ্ধে কিভাবে লড়াই করতে হয়।

কিন্তু করোনার নামে এটা কেমন ধরনের বাধ্যবাধকতা যেটা ভয় দেখিয়ে সরকার জোর করে চাপিয়ে দিচ্ছে?
এদিকে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সর্বোচ্চ সতর্কতার আহবান প্রবাসীদেরও। করোনায় এখন পর্যন্ত প্রায় তিন লাখ জার্মান আক্রান্ত হলেও মৃতের সংখ্যা সাড়ে ৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।