জয়পুরহাট চুরির অপবাদে শিশু কন্যাকে গাছে বেধে নির্যাতন 

40
জয়পুরহাট চুরির অপবাদে শিশু কন্যাকে গাছে বেধে নির্যাতন 

এম রাসেল  আহমেদ, জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে মাত্র দুইশ’ টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে আনিকা আক্তার (৯) নামের এক তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে রশি দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। ওই নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই অভিযুক্ত বেলী বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে ক্ষেতলাল উপজেলার ধনতলা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গ্রেপ্তারকৃত বেলী বেগম ধনতলা বাজার এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিকের স্ত্রী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নীরেন্দ্রনাথ মণ্ডল।

নির্যাতনের শিকার আনিকা আক্তার ধনতলা বাজার এলাকার  আনিসুর রহমানের মেয়ে। সে স্থানীয় সমান্তাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি নীরেন্দ্রনাথ মণ্ডল জানান, ধনতলা বাজারের চা বিক্রেতা বেলী বেগম চা বিক্রি করছিলেন। এমন সময় ক্যাশ বাক্সে দুইশ’ টাকা না থাকার অভিযোগ এনে আনিকাকে বাজারের পাশে রশি দিয়ে  গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যতন করেন। স্থানীয়রা এগিয়ে চুরির অভিযোগ করেন বেলী বেগম। 

ওসি আরও জানান, গাছে বাঁধা ওই শিশু টাকা চুরির কথা অস্বীকার করে চিৎকার করে কাঁদতে থাকে। এ সময় স্থানীয় একজন ঘটনাটি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করলে মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। মামলা হলে অভিযুক্ত বেলী বেগমকে রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়।