জয়পুরহাট স্বামী কতৃক স্ত্রীর গায়ে আগুন, আইসিইউতে স্ত্রীর মৃত্যু 

410
জয়পুরহাট স্বামী কতৃক স্ত্রীর গায়ে আগুন, আইসিইউতে স্ত্রীর মৃত্যু 

এম রাসেল  আহমেদ  জয়পুরহাট: জয়পুরহাটে স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে স্ত্রীর আইসিইউতে মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (৬ আগস্ট) চিকৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় স্বামী শরিফুল ইসলাম ওরফে রনিকে (৩২) গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শরিফুল ক্ষেতলাল উপজেলার রোয়াইর গ্রামের মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। মৃতের নাম মঞ্জিলা খাতুন (২৮)। তিনি জয়পুরহাট সদর উপজেলার দক্ষিণ বানিয়া পাড়া গ্রামের আঃসবুর সরদারের ছোট মেয়ে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২৬ জুলাই দুপুরে উপজেলার রোয়াইর গ্রামের শরিফুল পারিবারিক কলহের একপর্যায়ে স্ত্রীর গায়ে কেরোসিনের তেল দিয়ে আগুন ধরিয়ে হত্যাচেষ্টা করে। তবে রনির দাবি তার স্ত্রী নিজেই আগুন লাগিয়েছে গায়ে, নিভাতে গিয়ে আমার হাত পুরে গেছে।

পরিবারের লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় মঞ্জিলাকে প্রথমে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে স্থানান্তর করা হয়।

মৃতের দুলাভাই শামীম বলেন, আজ (শুক্রবার) দুপুর ১২টার পরপর শ্যালিকা মঞ্জিলার মৃত্যুর সংবাদ পাই। লাশ আনার প্রস্তুতি চলছে। শুনেছি পুলিশ শরিফুলকে গ্রেফতার করেছে। আমরা এ ঘটনায় দ্রুত ও সঠিক বিচার দাবি করছি।

ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিরেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, ওই ঘটনায় ২৯ জুলাই মঞ্জিলার বাবা বাদী হয়ে জামাই শরিফুলের বিরুদ্ধে ক্ষেতলাল থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর ৩০ জুলাই রাতে ঢাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।