টিকেট কালোবাজারীদের অপকর্ম কায়েম করতে ষ্টেশন মাষ্টারকে ফাঁসানোর অভিযোগ

74
টিকেট কালোবাজারীদের অপকর্ম কায়েম করতে ষ্টেশন মাষ্টারকে ফাঁসানোর অভিযোগ। ছবি-আলমগীর

সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি): টিকেট কালোবাজারীদের অপকর্মের রাজত্ব কায়েম করতে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ রেল ষ্টেশন মাষ্টারকে পরিকল্পিতভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগ করেছেন ওই ষ্টেশনের সাবেক ষ্টেশন মাস্টার মোক্তার হোসেন। তার অভিযোগ সততার সাথে কাজ করায় অসৎ ফাঁয়দা হাসিল না করতে পেরে তাকে ফাঁসাতে একটি টিকেট কালোবাজারী চক্র বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করছে চক্রটি।

ইতিপুর্বে তার বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদলিপি পত্রিকা অফিসে পাঠালে সত্যতা বিবেচনায় গত ১৪ জুন প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদও প্রকাশ করে জাতীয় পত্রিকা দৈনিক কালেরকন্ঠ। পীরগঞ্জ ষ্টেশনের সাবেক ষ্টেশন মাস্টার মোক্তার হোসেন বলেন, তার দায়িত্ব থাকাকালীন সময়ে টিকিট বিক্রিতে স্বচ্ছতা থাকায় টিকিট কালোবাজারীরা অসৎ ফায়দা করতে না পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রথম থেকেই তার ক্ষতি সাধনের চেষ্টা করে আসছিলো।

এতেও কোন কাজ না হওয়ায় তার সুনাম ক্ষুন্ন করতে সংবাদকর্মীদের ভূল তথ্য দিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় যা পরবর্তীতে মিথ্যা হিসেবে প্রমাণিত হয়।তিনি বলেন, গত ১২ জুন রেলের স্বাভাবিক নিয়মে রেল কর্তৃপক্ষের আদেশে কন্ট্রোল নম্বর ৩২২ এর মাধ্যমে বগুড়ার সোনাতলা ষ্টেশনে আমার বদলী হয়। কিন্তু আমর বদলী হওয়ার পরও থেমে নেই সেই কুচক্রীমহল।আমার বদলীর পরও গত ১৭ জুন যায়যায়দিন নামক পত্রিকায় সংবাদের শেষ অংশে আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে।

সেখানে বলা হয় “পীরগঞ্জ ষ্টেশনে ৫০০ টাকার টিকিট ১২০০ টাকায় বিক্রি করায় আমাকে প্রেষণে বগুড়ায় বদলী করা হয়েছে”। আমাকে প্রেষণে নয়, রেলের স্বাভাবিক নিয়মেই কন্ট্রোল নাম্বারের ভিত্তিতে বদলী করা হয়েছে। এ বিষয়ে পীরগঞ্জ রেল ষ্ঠেশনের বর্তমান ষ্টেশন মাস্টার রবিউল ইসলাম জানান, সম্প্রতি ষ্টেশনে টিকেট কালোবাজারীদের উৎপাত বৃদ্ধি পেয়েছে।

তাদের দৌরাত্ম রোধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে এখন ষ্টেশন পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে সাধারণ যাত্রীদের মাঝে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রেজাউল করিম জানান, রেলের টিকিট কালোবাজারী রোধে ষ্টেশন পুলিশ ও আনসার বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। প্রয়োজনে টিকিট কালোবাজারীদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা প্রদান করা হবে।