টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ১০ জুন

163

সুপ্রভাত বগুড়া (খেলা-ধুলা): আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) বৃহস্পতিবার কোন সিদ্ধান্ত নিল না টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে। গতকালের বৈঠকটি হয়েছে আইসিসির অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে। মূলত বোর্ডের ই-মেইল ফাঁস হওয়ার ঘটনা নিয়েই আলোচনা হয়।

তবে অক্টোবরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হবে, নাকি ২০২১ সালে হবে এ নিয়ে সংস্থাটি পরবর্তী সভা ১০ জুনে সিদ্ধান্ত নিবে। করোনাকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হয়েছে আইসিসির বোর্ড সভা।

টেলি-কনফারেন্সের পর আইসিসি জানিয়েছে, ‘‘বোর্ড থেকে আইসিসি ম্যানেজমেন্টকে জানানো হয়েছে, কোভিড-১৯’র প্রভাব ও দৈনন্দিন বিষয় নিয়ে যাতে বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যায়।”

এদিন বোর্ডের টেলি-কনফারেন্সে বেশিরভাগ সময়ই আলোচনা হয় বোর্ডের ই-মেল ফাঁস হয়ে যাওয়া নিয়ে। যা নিয়ে শশাঙ্ক মনোহর ও বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়।

এ বিষয়ে আইসিসির জানায়, ‘‘বোর্ড সদস্যদের একজন এই বিষয়ে চিন্তার কথা জানান এবং বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বাইরে চলে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে দ্রুত কোনও পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেন।”

বিবৃতিতে আইসিসি আরও জানায়, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আরও বিস্তারিত আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে দ্রুত পরিবর্তিত জনস্বাস্থ্য পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে বিভিন্ন সংস্থার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে, যদিও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরিকল্পনা অব্যাহত রয়েছে।

তবে সেটা নিয়ে সবই একমত না হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হবে নাকি ২০২১ সালে হবে, এর আসল সমাধান ১০ জুনের বোর্ড মিটিংয়ে নেওয়া হবে।’ আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ের দিন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাদের পরবর্তী সূচি ঘোষণা করেছে।

সূচিতে অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে ভারতের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। এর পর বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠছে, সেই অবস্থায় কেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ করা যাবে না। তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করা শুধু স্বাস্থ্যটা বিষয় নয়, তার মধ্যে রয়েছে ব্যবসায়িক দিকও।  

করোনাভাইরাসের কারণে যদি বিশ্বকাপ পিছিয়ে যায়, আর এই সুযোগে অক্টোবর-নভেম্বরে আইপিএল করার কথা ভাবছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। বিসিসিআই যদি আইপিএল আয়োজন করতে না পারে তাহলে চার হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হবে তাদের।