ঠাকুরগাঁওয়ের অপহৃত ব্যবসায়ী উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশের সংবাদ সম্মেলন

42
ঠাকুরগাঁওয়ের অপহৃত ব্যবসায়ী উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশের সংবাদ সম্মেলন। ছবি-আলমগীর
সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর হোসেন): ঠাকুরগাঁওয়ে জুয়েল রানা (২৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের ঘটনায় ৮ অপহরণকারীদের গ্রেফতারের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা পুলিশ বিভাগ।

ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশের আয়োজনে আজ সোমবার বিকেলে পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( প্রশাসন) মুহাম্মদ কামাল হোসেন। তিনি বলেন, গত শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দেবীপুর ইউনিয়নের ১১ মাইল এলাকার জাফর আলী ফিলিং স্টেশন থেকে মোটরসাইকেলে পেট্রোল নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন ব্যবসায়ী জুয়েল রানা।

এসময় পাম্পের সামনে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড় সড়কে মোটরসাইকেলের পথরোধ করে জোরপূর্বক ব্যবসায়ী জুয়েলকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে অপহরণ করে অপহরণকারীরা এবং মুঠোফোন দিয়ে তার পরিবারের কাছে ১৫ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে।

পরে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার করে শনিবার ভোরের দিকে সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু যমুনা সেতু পশ্চিম থানা পুলিশের সহযোগিতায় যমুনা ব্রীজ এলাকায় মাইক্রোবাসটিকে আটক করা হয়। এরপর অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধার ও অপহরণকারী ৮ জনকে আটক করা হয়। এছাড়াও তারা অপহরনের কাজে ব্যাবহৃত মাইক্রোবাসটিতে নির্বাহী মেজিস্ট্রেট ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের স্টিকার ও নেমপ্লেট ব্যাবহার করে।

আটককৃতরা হলেন-                                                                                                             জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার পাকেরদহ গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে আশারফুল ইসলাম আরিফ (২৭), কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার নেওয়াশী গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে হুমায়ুন কবির (৪৫), জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ থানার নিশ্চিন্তপুরের আব্দুল মান্নানের ছেলে আলাউদ্দিন (৩৫), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবী নগর উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৩২),

বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সরকারী পাড়ার আব্দুল লতিফের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৪৫), নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার চাতার পাইয়া গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে সোহাগ (৩২), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার মনিঅন্ধ গ্রামের নুরল আমিনের ছেলে আল আমিন (৩৫) । এছাড়াও মাইক্রোবাস চালক রাজশাহী জেলার সালাউদ্দীন (৩৯) এর গাড়ি থেকে বিপুল পরিমান ইয়াবা পাওয়া গেলে তাকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম থানা হেফাজতে রাখা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবু তাহের মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( হেড কোয়ার্টার) মোসফেকুর রহিম, সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মর্তুজা উপস্থিত ছিলেন।