ঠাকুরগাঁওয়ে হোটেল খোলা ও ১২ জন ব্যক্তিকে রাখার অপরাধে জরিমানা করেন ইউএনও !

85

সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর হোসেন): ঢাকা থেকে আগতদের হোটেলে থাকতে দেওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ে মালিকসহ ৮ জনকে জরিমানা ! বর্তমান করোনা পরিস্থিতি অর্থাৎ লকডাউনের মধ্যেও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবেশ করছে মানুষ।

যাদের চিহ্নিত করা যাচ্ছে বা খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে তাদের সাথে সাথেই জরিমানাসহ নিজ এলাকায় ফেরৎ পাঠানোর ব্যবস্থা করছে প্রশাসন। এমনি এক ঘটনা ঘটেছে আজ। গতকাল শনিবার মাঝ রাতে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন বিশ্বস্ত সুত্রে খবর পান শহরের মির্জা পাম্প সংলগ্ন হোটেল নূর বোর্ডিং নামক এক হোটেলে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ১২জন ব্যক্তি ওই হোটেলে অবস্থান করছেন।

বিষয়টি যাচাই করতে আজ রবিবার সকালে সেই হোটেলে অভিযান চালালে এর সত্যতা পাওয়া যায়। এসময় ইউএনওকে দেখে ৫ জন বোর্ডার হোটেলের প্রাচীর টপকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও ধরা পড়েন ৭ জন।

পরে হোটেল নূর বোর্ডিং এর মালিক মোঃ মশিউর রহমান (৩৪) কে ডেকে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে বোর্ডিং খোলা ও ১২ জন ব্যক্তিকে রাখার অপরাধে ৫০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ঢাকা ও অন্য জেলা হতে আগত ৭ জনের প্রত্যেককে ১০০০ টাকা করে জরিমানা করা হয় এবং তৎক্ষনাৎ তাদেরকে মুচলেকা দিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বলা হয়।

এসময় তারা জরিমানা প্রদান করে সবাই বোর্ডিং ছেড়ে চলে যায়। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন  জানান, বর্তমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবেশ করেছে এবং শহরের হোটেল নূর বোরিডং-এ অবস্থান করছে- এমন খবর পেয়ে অভিযুক্ত হোটেলে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় হোটেলে অবস্থানরত ৫ জন পালিয়ে গেলেও ৭জনকে আটক করা হয়। পরে হোটেল মালিককে ডেকে  বোর্ডিং খোলা ও ১২ জন ব্যক্তিকে রাখার অপরাধে জরিমানা করা হয়, একই সাথে আটক সাতজনকেও জরিমানা করে বোর্ডিং ছেড়ে নিজ এলাকায় চলে যেতে বলা হয়। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।