ঢেউ

112

শহীদুল আলম (শাহীন)

সুপ্রভাত বগুড়া (স্বাধীন মতামত): সবাই জানতো ঢেউ শব্দের ব্যবহার হতো নদী ও সমুদ্রের ক্ষেত্রে। কিন্তু আজ বিশ্বের মানুষ এক ক্ষুদে জীবানুর কাছে পরাস্ত হয়ে হারে হারে টের পাচ্ছে নতুন এক ঢেউয়ের আগমনে।

এখন সবার কাছেই পরিচিত হচ্ছে করোনা । এর সংক্রমন শুধু মহামারীই নয় ঢেউয়ের মত একের পর এক আঘাত হানছে মানব জাতির কুলে। শুরু থেকে এক বছরের মাথায় ৩৩ লাখ মানুষের জীবন প্রদীপ নিভে দিয়েছে এই ঢেউ। কেড়ে নিয়েছে মানুষের শান্তি।

মৃত্যুর মিছিল মানুষ আগে কখনও দেখেনি বা কল্পনাও করেনি। সর্বাধুনিক মানব সমাজ আজ প্রকৃতির কাছে অসহায়। কোটি টাকা থেকেও কোন কাজে আসছে না। কি গরীব কি ধনী কাউকেই ছাড় দিচ্ছে না এই করোনা। এই জীবানু এতটাই ভয়াবহ যে রক্তের সম্পর্কেও বিভেদ ঘটাচ্ছে। জীবনের ভয়ে সেবা তো দূরর কথা কেউ রোগীর ধারে কাছেও থাকছে না।

করোনা জীবানুর উৎপত্তি স্থল চিহ্নিত হলেও এর উৎস খুঁজে পাওয়া যায় নি। উৎস না পেলে এর মূল উৎপাটন সম্ভব নয়। করোনার প্রথম ঢেউয়ের আঘাতে আমার অফিসের ও বাড়ির অনেকেই আক্রান্ত ও ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বাড়িতে বন্দি হয়ে থাকতে হয়েছে অনেকদিন। বন্দিদশা থেকে মুক্তি পেয়েছি।

কিন্তু মুক্তি পাওয়ার পর পরই আবার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কা থেকে নিজেদের রক্ষার জন্য করোনার টিকা নিতে হয়েছে। তারপরেও সংক্রমনের আশংকা থেকেই যাচ্ছে। দ্বিতীয ঢেউয়ের পর আবার তৃতীয় ঢেউয়ের অপেক্ষা। আর কত ঢেউ আসবে জানিনা। মানুষ এখন সবকিছু সৃষ্টিকর্তার উপর ছেড়ে দিয়েছে।

লেখক/সাহিত্যিক :                                                                                                        মোঃ শহীদুল আলম (শাহীন)
০১৭৩৮-৪৮৯২০৬