দেশকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে সরকার : ফখরুল

125
দেশকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে সরকার ফখরুল। ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (জাতীয়): বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনগণকে জিম্মি করে সরকার দেশকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আজকে যে সংকট সেটা আওয়ামী লীগ সৃষ্টি করেছে। তারা তাদের শাসন ব্যবস্থাকে পাকাপোক্ত করার জন্য গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে দিয়েছে এবং মানুষের ভোট দেয়ার অধিকার পর্যন্ত তারা লুটে নিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রয়াত তরিকুল ইসলামের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় এসব কথা বলেন তিনি। তরিকুল ইসলাম স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মির্জা ফখরুল বলেন, দ্রব্যমূল্য আকাশচুম্বী। প্রত্যেকটা জিনিসের দাম তিন-চারগুন-পাঁচগুন হয়ে গেছে। ক্ষমতাসীনদের লুটপাটের জন্যে এটা হচ্ছে।

তারা সিন্ডিকেট তৈরি করছে, তারা সব মুনাফা লুট করে নিয়ে যাচ্ছে। যেকোনো কৃষক, রিক্সাচালক, শ্রমিকদের কাছে জিজ্ঞাসা করেন, তারা কেমন আছেন? তাদের কোনো উন্নয়ন হয়নি। উন্নয়ন হয়েছে ক্ষমতাসীনদের। হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাঁচার করেছে তারা। জিডিপির প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, উন্নয়নের কথা বলে জিডিপি সম্পর্কে সরকার মিথ্যা বলছে। এ কথা বলায় সরকারের খারাপ লেগেছে। খারাপ লাগার তো কিছু নেই- এটাই সত্য।

এই অবস্থা থেকে উত্তরণে জাতীয় ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, নিজেরা ঐক্যবদ্ধ হই, পরস্পর পরস্পরকে বোঝার চেষ্টা করি, ভালোবাসার চেষ্টা করি, ভ্রাতৃত্ববোধ সৃষ্টি করি। সেই সাথে সমস্ত মানুষকে যেন একখানে আনতে পারি, সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলোকে যেন এক জায়গায় আনতে পারি, তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে গণতন্ত্রের আন্দোলনকে তীব্র থেকে তীব্রতর করতে পারি সেই চেষ্টা করতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রতিদিন কথা বলেন এবং তার অত্যন্ত সুবেশী মানুষ। চমৎকার একটা ঘরের মধ্যে চমৎকার, একটা আসনের মধ্যে খুব সুন্দর করে কথা বলেন। তার একটাই বক্তব্য, প্রতিপাদ্য একটাই যে, বিএনপির এই নাই. বিএনপির ওই নাই।

বিএনপি নাকি সংকটে পড়েছে, বিএনপিতে অন্ধকার। তাহলে মুখে সারাক্ষণ বিএনপি কেনো? আপনার মুখে এতো আলো কেনো বিএনপির? কারণ সরকার জানে, বিএনপি হচ্ছে একমাত্র দল যে রাজনৈতিক দলটি গণতন্ত্র আনতে পারে, অবস্থার পরিবর্তন করতে পারে। ক্ষমতাসীনরা যে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছেন তার অবসান করতে পারে।