দোকানটাই যখন লক ডাউনের

56

সুপ্রভাত বগুড়া (এ কে দিপংকর, বগুড়া সদর প্রতিনিধি): দোকানের নামের দিকে তাকিয়েই হাসি পাবে আপনার। কারণ তাতে লেখা লকডাউনের দোকান। লেখার কারণ হলো এই ছোট দোকানটির সৃষ্টিই হয়েছে লকডাউনের কারণে।

করোনা ভাইরাসের কারণে ব্যবসা বাণিজ্যের যখন বেহাল দশা। লকডাউনের সময় ঠিকমত করা যায়নি দোকানের বেচাকেনা। তাই অনেকটা নিরুপায় হয়ে মগলিশপুরের মুদি দোকানি মঙ্গল দাস বাড়িতেই দোকানের জিনিসপত্র রেখে বেচা শুরু করে।

আর তাতে বেচাকেনার বেশ সাড়া পায় সে। নদীর তীরবর্তী হওয়ায় অনেকেই বিকাল বেলা নদীর ধারে বেড়াতে যায়। ফলে সেখানে চা, সিগারেট, পিয়াজী সহ বিভিন্ন পণ্যের বেচাকেনা বেশ ভালো বলে জানা যায়।

ক্রেতাদের কাছে জানা যায় এখানকার চা ও ভাজাপোড়ার জিনিসগুলো সুস্বাদু হয় বলে তারা সেখানে ভিড় করে। মজার বিষয় হলো, এই দোকানটি হয়ে থাকবে করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের এক ইতিহাস হয়ে।