ধর্ষণকাণ্ডে ক্ষুব্ধতা প্রকাশ করেছেন তারকারা

125
ধর্ষণকাণ্ডে ক্ষুব্ধতা প্রকাশ করেছেন তারকারা। ছবি-সম্পাদিত

সুপ্রভাত বগুড়া (বিনোদন): নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় দেশজুড়ে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। এর বাইরে নেই দেশের জনপ্রিয় তারকারা। এর প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন তারাও।ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, মাগো, কী বিভৎসতা!

ধর্ষণ আবার ধর্ষণ, কী কুৎসিত! কবে থামবে? এখন প্রত্যেকটি মেয়ের ত্রিশূল আর রামদা হাতে রাখার সময় এসেছে।কালো একটি ছবি পোস্ট করে চঞ্চল চৌধুরী লিখেছেন, প্রতিবাদৃ.শাস্তি চাই অমানুষ গুলোর। ধিক্কার জানিয়ে চিত্রনায়িকা জাকিয়া বারী মম লিখেছেন, এই ধর্ষণের দেশ আর চাই না। মাননীয় এত ক্ষমতা দিয়ে কী হবে? দেশের নারী ধর্ষিত আর আমরা ধর্ষক! ধিক্কার।

অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন লিখেছেন, মৃত্যুদণ্ড কিংবা ক্রসফায়ার, কোনো শাস্তিই যথেষ্ট নয় অমানুষগুলোর জন্য। এত সহজে তাদের মরে যেতে দিলে তো হবে না! ধর্ষকের এমন কঠিন শাস্তির বিধান হোক যেন তারা প্রতিটি মুহূর্তে নিজেদের মৃত্যু কামনা করে। স্বাধীনতা স্তম্ভের নিচে বিশাল জনসমুদ্রের সামনে সেই ভয়াবহতম শাস্তি কার্যকর হোক, সবগুলো টেলিভিশন চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার করা হোক যেন প্রত্যেকটা সম্ভাব্য ধর্ষক শিউরে উঠে।

আর কোনো নপুংসকের কল্পনাতেও যেন ধর্ষণের চিন্তা না আসে।ছোট পর্দার অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী লিছেন, ধর্ষককে ফাঁসি দিন। অভিনেতা জিয়াউল হক অপূর্ব লিখেছেন, মানুষ, ধর্ষণ বন্ধ করো। চিত্রনায়িকা নিপুণ লিখেছেন, মা আমি লজ্জিত, আমি বিক্ষুব্ধ, আমি বাকরুদ্ধ।চিত্রনায়ক জায়েদ খান লিখেছেন, নোয়াখালীর ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এমন নরপশুদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ লজ্জা আমাদের সবার।জায়েদ খানের এই স্ট্যাটাসে মন্তব্য করেছেন আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম পারভীন। তিনি লিখেছেন, প্রতিবাদ জানাই এবং যোগ্য শাস্তি দাবি করছি এই ঘৃণ্য বর্বরোচিত হামলার জন্য।উল্লেখ্য, গত ২ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকার নূর ইসলাম মিয়ার বাড়িতে ওই গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে তার স্বামীকে পাশের কক্ষে বেঁধে রাখেন স্থানীয় বাদল ও তার সহযোগীরা।

এরপর গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন তারা।এ সময় গৃহবধূ বাধা দিলে তারা বিবস্ত্র করে বেধড়ক মারধর করে মোবাইলে ভিডিওচিত্র ধারণ করেন। নির্যাতনের ঘটনার ৩৩ দিন পর ৯ জনকে আসামি করে গত রোববার রাত ১টার দিকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন নির্যাতিতা গৃহবধূ (৩৫)।