ধর্ষণের জন্য নারীবাদীদের দায়ী করলেন বগুড়া-৭ আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বাবলু

352
ধর্ষণের জন্য নারীবাদীদের দায়ী করলেন বগুড়া-৭ আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বাবলু। ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (স্বাধীন মতামত): ধর্ষণের জন্য নারীবাদীদের দায়ী করলেন বগুড়া-৭ আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বাবলু। এর পাশাপাশি যৌন নিপীড়ন রোধে নারীদের পর্দার অন্তরালে রাখার যে কথা হেফাজেতে ইসলামের প্রয়াত আমির শাহ আহমদ শফী বলেছিলেন, তাতেও সমর্থন জানান তিনি। আজ মঙ্গলবার সংসদে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান করে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) বিল- ২০০০‘ পাস হয়।

বিলটি পাসের আগে সেটি জনমত যাচাই ও বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাব তোলার সময় আলোচনাইয় এসব কথা বলেন বাবলু। রেজাউল করিম বাবলু বলেন, ‘এখানে কী দেখছি মাননীয় স্পিকার, নারীবাদীরা নারী স্বাধীনতার কথা বলে নারীদেরকে উন্মুক্ত করে চলছে। যার কারণেই ধর্ষকেরা ধর্ষণের অনুভূতিকে এতটা একসেপ্ট করেছে যে ধর্ষণে উৎসাহিত হচ্ছে।’

আহমদ শফীর পথে চলার আহ্বান জানিয়ে বাবলু বলেন, ‘আমি যেটা বলব, আমরা ইতিপূর্বে আল্লামা শফি সাহেবকে তেঁতুল হুজুর বলে উল্লেখ করেছি মাননীয় স্পিকার। আল্লামা তেঁতুল হুজুরের তেঁতুল থিওরিটাও যদি কাজে লাগানো যেত, তাহলে ধর্ষকেরা ধর্ষণ থেকে পিছপা হতো।

ধর্ষণ থেকে তারা নিরুৎসাহিত হতো। তাদের ভেতরে ধর্মীয় অনূভূতি আসত।’ প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে খালেদা জিয়ার আসন বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাহজাহানপুর) এ ধানের শীষের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গেলে সেই ফাঁকে বিএনপির সমর্থন নিয়ে সংসদ সদস্য হয়ে যান স্বতন্ত্র প্রার্থী বাবলু।

গত মাসে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে বাবলুর একটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে। সেটি তার বৈধ অস্ত্র বলে জানান তিনি।