ধামইরহাটে অভিনব পন্থায় কৃষকের গাছ কর্তন!

175

সুপ্রভাত বগুড়া ( মোত্তাখারুল হক, ধামইরহাট (নওগাঁ): নওগাঁর ধামইরহাটে অভিনব পন্থায় কৃষকের গাছ কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। একের পর এক গাছ কর্তন করায় কৃষক মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন। অবশেষে গ্রাম্য সালিশে গাছ কাটার অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তি নিজের অপকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন।

জানা গেছে,উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের অন্তর্গত মইশড় গ্রামের কৃষক মো.ফারুক আজিজ কামাল এর মইশড় ছোট মোন্নাপাড়ায় দুই একর জমিতে কাঠ বাগান অবস্থিত। প্রায় ১৩ বছর পূর্বে ওই বাগানে আকাশমনি,ইউক্যালিকটাস গাছ রোপন করেন। বর্তমানে গাছগুলো বেশ বড় হয়েছে।

কিছু দিনের গাছগুলো কর্তন করা যাবে। এব্যাপারে কৃষক মো.ফারুক আজিজ কামাল বলেন,তার বাগানে মোট ২ হাজার ৪শতটি গাছ রয়েছে। ইদানিং বাগানের পশ্চিম পার্শে বসবাসরত গণেশ হাঁসদা ও তার স্ত্রী রুপালী মুরমু অভিনব পন্থায় রাতে গাছ কর্তন করছে।

প্রথমে তারা গাছের গোড়ার দিকে প্রায় ১ফুট দূরত্বে গাছের ছাল বাকল ওঠিয়ে দেয়। গাছের গোড়া থেকে উপরের অংশের ছাল বাকলের সংযোগ না থাকায় ধীরে ধীরে ওই গাছটি মরে যেতে থাকে।

এসময় ওই কুচক্রী পরিবার মরা গাছ হিসেবে সেগুলো কেটে নিয়ে যায়। এভাবে তার বাগানের প্রায় ৯৫টির মত গাছ কর্তন করে। এতে আনুমানিক প্রায় তিন লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়।

বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মাজেদুরর রহমান,ওয়ার্ড আ.লীগের সভাপতি ইদ্রিস আলীসহ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে মইশড় ক্লাবে গত সোমবার সালিশি বৈঠক বসে। বৈঠকে ওই দম্পতি নিজেরে অপকর্মের জন্য ভুল স্বীকার করেন এবং পরবর্তীতে আর এ ধরণের অপরাধমূলক কাজ করবেন না মর্মে অঙ্গীকার করেন।