নওগাঁর আত্রাইয়ে ঈদকে সামনে রেখে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি হচ্ছে লাচ্ছা সেমাই

94

সুপ্রভাত বগুড়া ( এমরান মাহমুদ প্রত্যয়, নওগাঁ, প্রতিনিধি): নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় ঈদকে সামনে রেখে ভেজাল লাচ্ছা সেমাই তৈরির ধুম পড়েছে। স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এই ঝুঁকিপূর্ণ উপকরণ দিয়ে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি করা হচ্ছে এসব লাচ্ছা সেমাই।

ভেজাল কারীদের অভিযান শিথিল হওয়ার বিএসটিআই অনুমতি ছাড়াই এ সব লাচ্ছা সেমাই খোলা অবস্থায় ও পলি প্যাক করে বিক্রি করা অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কয়েক জনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদকে সামনে রেখে আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় গড়ে উঠেছে এ সব লাচ্ছা সেমাইয়ের কারখানা।

এছাড়াও বিভিন্ন কেমিক্যাল ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর রং ব্যবহার করে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি করা হচ্ছে এসব লাচ্ছা সেমাই।

প্রতি বছরই ঈদ সামনে রেখে এসব মৌসুমে ব্যবসায়ীরা কোন সরকারি নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে তৈরি করেছে লাচ্ছা সেমাই।সুত্রে জানা গেছে অধিকাংশ কারখানা বিএসটিআইয়ের অনুমতি ছাড়া প্রতিষ্ঠান অনেক কোম্পানি লেবেল গায়ে লাগিয়ে লাচ্ছা সেমাই বাজারজাত করছে।

মানুষের খাওয়ার জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এইসব লাচ্ছা সেমাই। এসব লাচ্ছা সেমাই শুধু উপজেলার হাট-বাজার গুলোতে নয়, পাশবর্তী উপজেলা বাজার গুলোতে ও অবাধে পাঠানো হচ্ছে।

বিশেষ করে ভেজাল বিরোধী অভিযান শীথিল হয়ে পড়ায় লাচ্ছা সেমাই তৈরির ধুম পড়েছে। উপজেলার অলিতে-গলিতে স্থানীয় কারখানায় দিনরাত চলছে লাচ্ছা তৈরি কাজ।

আর অধিক মুনাফার আশায় এসব লাচ্ছা সেমাইতে ব্যবহার করা হচ্ছে ব্যবহারের অনুপযোগী নিম্নমানের ময়দা, পামতৈল, পোড়া তৈল ও স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর রং।

উপজেলায় বেশ কয়েকটি অবৈধ কারখানা রয়েছে, উপজেলার বান্দাইখাড়া বাজার এলাকাতে, কালিবাড়ি সংলগ্ন ও সরদারপাড়া বড় পুকুর পাড়ে, আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের জাত‌ আমরুল ইস্পাহানির ঘাট সংলগ্ন খাদ্যগুদামের পাশে, সহ উপজেলার বেশকিছু এলাকার আনাচে কানাচে লাচ্ছা সেমাই তৈরির কারখানা চালু রয়েছে।