নাটোরের লালপুরে সংযোগ সড়ক সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানববন্ধন

37
নাটোরের লালপুরে সংযোগ সড়ক সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানববন্ধন। ছবি-নাহিদ

সুপ্রভাত বগুড়া (নেওয়াজ মাহমুদ নাহিদ, লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধিঃ নাটোরের লালপুর উপজেলা পরিষদের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ইছামতি খালের উপরে সংযোগ সড়ক (বাঁধ) সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানব বন্ধন করেছে উপজেলার কয়েকশত পানিবন্দী ও ভুক্তভুগি মানুষ।

নাটোরের লালপুরে সংযোগ সড়ক সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানববন্ধন। ছবি-নাহিদ

আজ সোমবার (১৩জুলাই) সকালে উপজেলার পরিষদের সামনে গোপালপুর পৌরসভার ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড এর পানি বন্দী মানুষের আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর আব্দুল কুদ্দুস মালিথা, এলাকাবাসির মধ্যে নছির উদ্দিন, কাজী কামরুজ্জামান প্রমূখ।

বক্তারা বলেন গত কয়েক মাস আগে নাটোর- লালপুর প্রধান সড়কের উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন উক্ত খালের উপরের ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটি পুননির্মানের জন্য ভেঙ্গে ফেলে ঠিকাদার। যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে উক্ত খালের উপর সেতুর পাশ দিয়ে সংযোগ সড়ক (বাঁধ) নির্মান করে দেয়।

গত কয়েক দিনের বর্ষনে উজানের পানি বের হতে না পেরে বাঁধের উপর দিয়ে তীব্র স্রোতে পানি বের হচ্ছে। ফলে বাঁধ ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ে এবং যান চলাচল মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। এদিকে বাঁধটিতে পানি নিস্কাশনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় বিগত কয়েক দিনের বর্ষনে উজানের বৈদ্যনাথপুর, সিরাজীপুর,মহিষবাথান, মন্ডলপাড়া, স্টেডিয়ামপাড়া সহ ৮-১০ টি গ্রামের শত শত একর জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।

এছাড়া এ বাঁধের কারণে পার্শবর্তী প্রায় দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। শুধু তাই নয় পানিবন্দী এসব এলাকার মানুষ এখন পর্যন্ত কোন সহযোগিতা পায়নি। বার বার সড়কটি মেরামত ও পানি নিস্কাশনের দাবী জানালেও এখন পর্যন্ত কোন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া উক্ত সড়কের ওয়ালিয়া থেকে লালপুর পর্যন্ত প্রায় ১৫ কিলোমিটার রাস্তা বিগত কয়েক বছর সংস্কার না করায় শত শত বড় বড় খানা খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে সড়কটি মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। প্রায়শই যানবহন এসব খানা খন্দে আটকা পড়ে যান চলাচল ব্যহত করে।

দ্রুত উক্ত সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি বলেন, বিষয়টি নাটোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানানো হয়েছে। এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।