নাটোরে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে অন্যের বউকে বিয়ে করলো ছাত্রলীগ নেতা !

183
নাটোরে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে অন্যের বউকে বিয়ে করলো ছাত্রলীগ নেতা !

সুপ্রভাত বগুড়া (গরম খবর): আপত্তিকর অবস্থায় অন্যের বউয়ের সঙ্গে ধরা পড়ে বিয়ে করতে হলো ছাত্রলীগ নেতার। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোর জেলার গুরুদাসপুর এলাকায়।

জানাগেছে, নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এক ব্যবসায়ীর স্ত্রীর সাথে অবৈধ মিলনের সময় ধরা খাওয়ায় স্থানীয় জনতা ১০ লাখ টাকা কাবিনে তাদের বিয়ে দিয়েছেন।

ঘটনাটি এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টির করেছে। ছাত্রলীগের এই নেতার নাম সুবাশীষ কবির সুবাস।গতকাল মঙ্গলবার (২ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজার পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

সূত্রমতে, ওই এলাকায় ফিড ব্যবসায়ী জনি রহমানের স্ত্রীর সাথে দুই বছর ধরে পরকীয়া প্রেম চালিয়ে যাচ্ছিল ছাত্রলীগ নেতা সুবাস। বরাবরের মত মঙ্গলবার রাতেও জনিকে অন্য ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় রেখে পাশের একটি কক্ষে মিলিত হয় তারা।

নাটোরে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে অন্যের বউকে বিয়ে করলো ছাত্রলীগ নেতা !-ছবি-সংগ্রহ

এলাকাবাসী বিষয়টি টের পেয়ে তাদের হাতেনাতে আটক করে। এই ঘটনা জানার সাথে সাথে জনি রহমান তার স্ত্রীকে তালাক দিয়ে দেন। পরে ওই নারী ও তার পরকীয়া প্রেমিক সুবাসের সম্মতিতে ১০ লাখ টাকা কাবিনে তাদের বিয়ের আয়োজন করেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় কাজী আব্দুল্লাহ তাদের বিয়ে পড়ানো সম্পন্ন করলে ওই রাতেই নতুন বৌকে নিয়ে নিজবাড়িতে চলে যান সুবাস। জানা যায়, বেশ কয়েকবছর আগে স্থানীয় ফিড ব্যবসায়ী জনি রহমানের সাথে কুষ্টিয়ার ওই নারীর পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়।

দীর্ঘদিনের সংসারে তাদের কোনো সন্তান নেই। স্বামী সারাদিন ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত থাকার সুযোগে ২ বছর আগে থেকে ওই নারী সুবাসের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে।