বউকে তালাক দেবার পরও স্বামীর প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ

112
বউকে তালাক দেবার পরও স্বামীর প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ !!

সুপ্রভাত বগুড়া (অন্তর আহম্মেদ নওগাঁ): বগুড়ার আদমদীঘীতে এক নারীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের পর দু’টি সন্তানসহ তালাক দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার পর ও দিনের পর দিন মোবাইল ফোনে প্রাণনামের হুমকি দিয়েই চলছে সাবেক স্বামী আরিফুল হোসেন আরিফ।

ভূক্তভূগি চুমকির বাড়ি বগুড়ার আদমদীঘী উপজেলার দমদমা গ্রামের জালাল প্রাং এর মেয়ে ও সাবেক স্বামী আরিফুল হোসেনের বাড়ি সান্তাহার হাউজিং কলনী জাহিদুল ইসলামের ছেলে।

উল্লেখ্য যে মোবাইল ফোনে দিনের পর দিন হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে গত ২০ মার্চ ২০২০ বগুড়া জেলার আদমদীঘি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। যাহার নং ৭১৪ সাবেক স্বামী মোঃ আরিফুল হোসেন আরিফ ও তার নেতৃত্বে থাকা সাদেকুল ইসলাম (৪২) নামে।

এ বিষয়ে বগুড়া জেলার আদমদীঘি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের নিয়ে ও মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন ধরণের হুমকি দিচ্ছে তার বাহিনীরা। তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী চুমকির অভিযোগ, বিয়ের পর ২বৎসর ভালভাবে কেটে গেলে সে নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। তারপর থেকেই আমার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হয় ।

চুমকি দু’টি সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে সকল নির্যাতন মুখ বুঝে সহ্য করেও সংসারে থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। সাবেক স্বামী অবশেষে তাকে গত ২৫ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে ২টি সন্তান কেড়ে নিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয় ।

সে বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেন, এর ফাঁকে চুমকির অজান্তে চুমকিকে তালাক করেন। ৩০ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে বিষয়টি গোপন রাখিয়া স্বামী আরিফুল হোসেন আরিফ শুশুর বাড়িতে চুমকিকে নিতে যান, চুমকি অভিমান না করেই চলে আসেন ২টি সন্তানের কথা ভেবে স্বামী বাড়িতে।

কিছুদিন গত হলে জানতে পারেন স্বামী আরিফ তাকে তালাক করিয়াছেন ০৯ এপ্রিল ২০১৭ তারিখে বিয়টি প্রকাশ পায়।এ ঘটনায় বিচারের দাবিতে দুই সন্তানসহ আদালতের স্মরণাপন্ন হয়ে বগুড়া জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল দমন নং২ এ অভিযোগ করেন।

যাহার নম্বর ১৩৯পি/১৭, চলমান মামলা তুলে নিতে স্বাক্ষীসহ তাদের নানাভাবে হুমকি ও চুমকি চেক বই আরিফ এর কাছে থাকায় সেই চেকে জাল স্বাক্ষর করে কোর্টে মামলা করে। সেই মামলায় কোর্টে চেক জাল প্রমানিত হয়। ভূক্তভূগি চুমকি এ প্রতারণার বিরুদ্ধে সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন।