বগুড়ায় করোনার রিপোর্ট নিয়ে পজেটিভ-নেগেটিভ খেলার ফাঁদে পড়ে দিশেহারা সাধারন মানুষ!

57
বগুড়ায় বরোনার রিপোর্ট নিয়ে পজেটিভ-নেগেটিভ খেলার ফাঁদে পড়ে দিশেহারা সাধারন মানুষ! প্রতিকী-ছবি

যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ:

স্টাফ রিপোর্টার: করোনা ভাইরাসের টেস্ট নিয়ে যেমন রয়েছে নানা মুখি জটিলতা তেমনি আবার রিপোর্ট নিয়েও যেন ধুয়াশার শেষ নেই। জানা গেছে, বগুড়ায় আখতারী রহমান নামে একজন প্রথমে টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল থেকে ৪,৫০০ টাকা ফি দিয়ে করোনা টেস্ট করান।

তার নমুনা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডাক্তার সাহেব রিপোর্ট দিয়েছেন করোনা পজেটিভ । কিন্তু, রিপোর্ট পাওয়ার পর ভুক্তভুগী ভয়ে আতঙ্কে তিনি এবং তার পরিবার সেই রিপোর্টে আস্থা রাখতে পারেন নি।

অবশেষে একই দিন তিনি আবারও সরকারি হাসপাতালে করোনা টেস্টের জন্য নমুনা প্রদান করেন। পরবর্তীতে সেই সরকারি হাসপাতালের ডাক্তার সাহেব রিপোর্ট দিয়েছেন তিনি করোন নেগেটিভ ।

করোনা রিপোর্ট নিয়ে এমন বিভ্রান্তিতে সাধারণ মানুষ পড়েছেন ভোগান্তিতে। করোনার মত ভয়াবহ বিষয়ে পরীক্ষার ক্ষেত্রে চিকিৎসকের এরকম মনগড়া রিপোর্ট প্রদান সাধারণ মানুষের জীবনকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া ছাড়া আর কিছু নয়।

এমনকি তাদের পেশাগত দায়িত্বের প্রতি এটি একটি চরম অবহেলা এবং অযোগ্যতার প্রমাণ বলে মনে করছেন সচেতন মহল। যা চরম অপরাধও বটে।

তাই দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে জনগণের জীবন নিয়ে নেগেটিভ পজেটিভ খেলা বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের  সু-দৃষ্টি কামনা ও সত্যতা যাচাই পূর্বক যথাযথ ব্যবন্থা গ্রহণের সাধ্যমে সঠিক সমাধান মিলবে এমনটাই প্রত্যাশা সাধারণ মানুষের।