বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে পুকুর লুট!

66
বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে পুকুর লুট। ছবি-দৌলত

সুপ্রভাত বগুড়া (দৌলত জামান): বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে জমিজমা বিরোধের জেরে পুকুর লুট সারিয়াকান্দির নান্দিনার চরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে মোঃ  শাহজামাল সরকারের পুকুরের পাড়ের তার কাটার বেড়া ভেঙ্গে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকার মাছ লুট অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, মোঃ শাহজামাল সরকার (৪৫) পিতা মোঃ মোসলেম উদ্দিন সরকার, পূর্ব নান্দিনা, থানা- সারিয়াকান্দি, বগুড়া, বাদী হয়ে ১। মোঃ রফিকুল ইসলাম(৩৫) ২। মোঃ শফিকুল ইসলাম (২৫) উভয় এর পিতা মোঃ জহুরুল ইসলাম :(বাবরিওয়ালা) ৩। মোঃ জহুরুল(৬০) পিতা মৃত ইসহাক মন্ডল 

৪। মোঃ উকিল সোনার (৩৫) ৫। মোঃ রিপন সোনার(৩০) উভয়ের  পিতা দুলাল সোনার,৬। দুদু সোনার পিতা-মৃত তইয়ব আলী সোনার সকলের সং-নান্দিনার চর, থানা-সারিয়াকান্দি, জেলা-বগুড়া। ৭। মোহাম্মদ দুলাল সোনার পিতা-মৃত ঘোষণার  সং- নাংলার চর, থানা -মাদারগঞ্জ জেলা-জামালপুর সহ আরো অন্তত ১৫/২০  অভিযোগ  করা হয়েছে।

গত ২৬/০৪/২০২০ ইং তারিখে উক্ত জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে সারিয়াকান্দি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন মোঃ শাহ জালাল সরকার উক্ত জিডি নং-৮৫৫। বিরোধীরা তাদের বিরুদ্ধে জিডি করার খবর জানতে পেরে মোঃ শাহ জামালের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২৯/০৪/২০২০ তারিখে সময় আনুমানিক সকাল সাড়ে সাত ঘটিকায়,

তার পৈতৃক ও ক্রয় সূত্রে পুকুরের পাড়ে থাকা বেড়া-খুটি ও তার কাটার বেড়া উঠে পুকুরের মধ্যে ফেলে দেয় এবং কিছু আমগাছ তুলে ফেলেন এবং পুকুরের পাড়ে ওপর দুটি টিনের ঘর ভেঙেচুরে ফেলে।এতে প্রায়ই সর্বমোট ১৫০০০/- টাকার ক্ষতিসাধন হয়।

এবং এক বান্ডিল টিন আত্মসাতের উদ্দেশ্যে নিয়ে যায় যাহার মূল্য ৫০০/- টাকা।এছাড়াও পুকুর থেকে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকার মাছ লুটপাট করে। উক্ত সময়ে মোঃ শাহ জামাল তাদেরকে বাধা দিতে গেলে তার ওপর মারবো কে আচরণ শুরু করে এবং প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে।