বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় ঝড়ে বিধস্ত কবির চালকলসহ অর্ধ শতাধিক বাড়ি-ঘর ও প্রতিষ্ঠান

220

সুপ্রভাত বগুড়া (রায়হানুল ইসলাম): বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় ঝড়ে বিধস্ত অর্ধ শতাধিক বাড়ি-ঘর ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে পাকা ধানের। রাস্তা ও বাড়ি-ঘরে ভেঙ্গে পড়েছে ছোটবড় হাজারখানিক গাছ।

সরে জমিনে জানা গেছে, শনিবার দিবাগত ভোরে দুপচাঁচিয়া উপজেলার গুনাহার, তালোড়া, চৌমহনী, সদর ইউনিয়নের রাস্তার গাছসহ প্রতিটি গ্রামেরই বাড়ি ঘরের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বোরো মৌসুমের অধিক পাকা ধান মাটিতে ঝরে গেছে।

উল্লেখিত এলাকার কৃষকরা জানিয়েছেন, যে জমিতে ২০ মন করে ধান পেতাম সেখানে ১০/১৫ মন ধানের বেশি পাওয়া যাবেনা। অপরদিকে দুপচাঁচিয়া সদর ইউনিয়নের মেসার্স কবির উদ্দিন আকন্দ চালকলের সরে জমিনে দেখা যায় ঝড়ের বিধ্বস্ততা।

সম্পূর্ণ গুড়িয়ে যাওয়া টিনসেড ভবনটি চূর্ণবিচূর্ণ রূপ পথচারিকে থমকে দিয়েছে। তাদের দাবি কি করে সম্ভব এমটি হওয়ার। এসময় দেখা যায় মেসার্স কবির উদ্দিন আকন্দ চালকলের দুজন কর্মচারী বিধ্বস্ত অংশ থেকে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বের করছেন।

তাদের দাবি ক্ষতির পরিমাণ ৬-৭ লক্ষ টাকা। এক্ষতি তারা কিভাবে পুষিয়ে উঠবেন জানেননা। সেই সাথে তাদের কর্মও এখন অনিশ্চিত। ঈদের আগে তারা কাজ করতে না পারলে কঠিন অবস্থার মধ্যে ঈদ পালন করতে হবে।

একই রকম অনিশ্চয়তা বগুড়া টু দুপচাঁচিয়া রোডের পাশে ঝড়ের তান্ডবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থরাও। সবার দাবি রাষ্ট্রীয় সহায়তার।