বগুড়ায় করোনা উপসর্গে রোগীর মৃত্যু, লাশ নিতে আসেনি স্বজনরা !!

324
বগুড়ায় করোনা উপসর্গে রোগীর মৃত্যু, লাশ নিতে আসেনি স্বজনরা !! প্রতিকী-ছবি

সুপ্রভাত বগুড়া (আবদুল ওহাব বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়া টিএমএসএস রফাতউল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে একজন এবং আদমদীঘি নিজ বাড়িতে একজন করোনা উপসর্গে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। কিন্তু লাশ নিতে এগিয়ে আসেনি স্বজনদের কেহউ।

কাউকে না পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার ১৬ জুন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের সদস্যরা লাশ দু’টি সৎকার করেন এবং এ তথ্য নিশ্চিত করেন। মৃতরা হলেন- বগুড়া আদমদীঘি উপজেলার কাঞ্চনপুর চাঁপাপুরের বাসিন্দা ও যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তা রাজিব কুন্ডু (৪৫) ও ধুনট এলাকার পল্লী চিকিৎসক চিত্তরঞ্জন দত্ত (৭০)।

কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন বগুড়া শাখার অর্গানাইজার প্রকৌশলী মিজানুর রহমান জানান, করোনা উপসর্গ নিয়ে ব্যাংকার রাজিব কুন্ড সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে আদমদীঘির নিজ বাড়িতে মারা যান। তাকে সৎকারের জন্য কাউকে পাওয়া যায়নি।

প্রায় ১২ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা মৃতদেহটি স্থানীয় শ্মশানে সৎকার (দাহ) করেন।

বগুড়া টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ ও রফাতউল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালের সহকারী নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুর রহিম জানান, ধুনটের বৃদ্ধ পল্লী চিকিৎসক চিত্তরঞ্জন দত্ত করোনা উপসর্গে নিয়ে সোমবার বিকাল ৪টার দিকে তাদের হাসপাতালে ভর্তি ও সন্ধ্যা ৭টার দিকে মারা যান।

কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা তার মরদেহটি সৎকারের ব্যবস্থা করেন। এভাবে চির নিদ্রায় শায়িত করোনা রোগীদের খোজ নিতে কেহই এগিয়ে আসছেনা। যা মানবিক গুণাবলীর পরিপন্থি।