বগুড়ায় বিনামূল্যে সবজি ও ফলের চারা বিতরণ অনুষ্ঠিত

138
বগুড়ায় বিনামূল্যে সবজি ও ফলের চারা বিতরণ অনুষ্ঠিত। ছবি- খাজা রতন
স্টাফ রিপোর্টার: মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, ক্ষুধা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার। এই স্লোগানকে সামনে রেখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রতি ইঞ্চি জমির কার্যকরী ব্যবহারের লক্ষ্যে বিনামূল্যে সবজি ও ফলের চারা বিতরণ করা হয়েছে। কৃষিমন্ত্রনালয়ের আওতাধীন বগুড়ার মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট আঞ্চলিক কার্যালয়ের অর্থায়নে ও সদর উপজেলার গাজী পালশা অগ্রদূত ক্লাবের আয়োজনে অত্র ক্লাব চত্বরে এ বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
বুধবার ১৫-ই জুলাই বিকালে বগুড়ার মৃত্তিকা অফিসের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (বিসিএস-কৃষি) কৃষিবিদ গোলাম মওলা’র সভাপতিত্বে উক্ত বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বগুড়ার কৃতি সন্তান জানাব সাখাওয়াত হোসেন শফিক। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বগুড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু ওবায়দুল হাসান ববি, পৌর আ’লীগ নেতা বাদল কুন্ড, মাহমুদুন নবী রাসেল, শফিকুল ইসলাম শফিক, এস এম তারিক, ১৫’নং ওয়ার্ড আ’লীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক,
যুবলীগ নেতা এম আর ইসলাম রফিক, ১৫’নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম, জেলা ছাত্র লীগের সাবেক বিভাগীয় উপ সম্পাদক এস এম জোবাইদুল ইসলাম আসাদ, ছাত্র লীগ নেতা সেভিট, ছাত্র লীগ নেত্রী সুমি, জিনাত, রাগীব, মেহেদী, রাফসান, মেজবাহ প্রমূখ। বগুড়ার মৃত্তিকা অফিসের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মশিউর রহমানের সঞ্চালনায় উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম, খাইরুল ইসলাম সহ কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বক্তাগণ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী পতিত জায়গাগুলো সবজি ও ফল চাষের আওতায় এনে সবজি ও ফল উৎপাদন বৃদ্ধি করা। যাতে কৃষক তার পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করে উৎপাদিত অতিরিক্ত সবজি ও ফল বাজারে বিক্রি করে লাভবান হতে পারে। সে লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছে মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট আঞ্চলিক কার্যালয় বগুড়া।
করোনা পরিস্থিতিতে অনেকেই কর্মহীন এর মধ্যে এমন অনেকে রয়েছেন যাদের বাড়িতে পতিত জমি আছে আনুষঙ্গিক সহযোগিতা পেলে এরা কিছুটা হলেও দুঃখ লাঘব করতে পারবে। সে লক্ষ্য নিয়েই গাজী পালশা এলাকার কয়েক শতাধিক নারী ও পুরুষের মাঝে বিনামূল্যে পেঁপে, বেগুন ও আমরা’র চারা বিতরণ করা হচ্ছে।