বগুড়া ধুনটে চেয়ারম্যানের সামনেই ইউপি সদস্যকে পেটালো মুয়াজ্জিন

140
বগুড়া ধুনটে চেয়ারম্যানের সামনেই ইউপি সদস্যকে পেটালো মুয়াজ্জিন। প্রতিকী-ছবি

সুপ্রভাত বগুড়া (আবদুল ওহাব বগুড়া প্রতিনিধি): বগুড়ার ধুনট উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যানের সামনে সমদস্যকে মারপিট করেছে মসজিদের মুয়াজ্জিন। এঘটনায় মঙ্গলবার ২ জুন থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল কাদের নিিিশ্চন্তপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং তিনি ঐ গ্রামের মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক। মসজিদ পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই মসজিদের মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফকে চাকুরী থেকে অব্যহতি দেয়া হয়।

এতে করে একই গ্রামের বাসিন্দা মুয়াজ্জিন আবদুর রউফ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তিনি তার লোকজনকে বিষয়টি জানালে গ্রামে কোন্দল শুরু হয়। বিষয়টি সমাধানের জন্য ম্গলবার বিকেলে মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজ কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে ডেকে শুনানি করছিলেন।

এ সময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফ ও তার লোকজন চেয়ারম্যানের সামনেই ইউপি সদস্য আব্দুল কাদেরকে মারপিট করে। এতে করে ইউপি সদস্যের হাত ভেঙ্গে যায়। ঘটনার তীব্রতায় ওই কার্যালয়ের আসবাব পত্র ভাংচুর ও কাগজপত্র তছনছ করে।

পরে আহত ইউপি সদস্য আব্দুল কাদেরকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফ বলেন, বিনা কারণে মুয়াজ্জিনের পদ থেকে আমাকে বাদ দিয়েছেন ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের।

এ বিষয়টি জানানোর জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট গেলে সদস্য আব্দুল কাদের আমাকে মারধর করতে উদ্যেত হন। এসময় তার সাথে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে।

উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয় পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ সেলিম বলেন, মসজিদের মুয়াজ্জিন নিয়ে বিরোধের বিষয়টি শুনানিকালে আব্দুল রউফ ও তার লোকজন পিটিয়ে ইউপি সদস্যর হাত ভেঙ্গে দিয়েছেন।

এছাড়া কার্যালয়ের আসবাবপত্র ভাংচুর ও কাগজপত্র তছনছ করে প্রায় ১৫ হাজার টাকার ক্ষতি করেছে। এ ঘটনায় নিন্দা জ্ঞাপনসহ অপরাধীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করছি।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বলা বলেন, এ ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়েছে এবং জড়িতদের আটকের জন্য অভিযান চলছে।