বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার হুমকি ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে সন্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের মানববন্ধন

135
বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার হুমকি ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে সন্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের মানববন্ধন। ছবি-আলমগীর

 সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর হোসেন): ৫ ডিসেম্বর’২০, ঠাকুরগাঁও: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর
রহমানের ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার হুমকি এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ  অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশব্যাপী কর্মসুচির অংশ হিসেবে শনিবার দুপুরে
শহরের চৌরাস্তায় সন্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ঠাকুরগাঁও জেলাশাখা এই কর্মসুচি পালন করে।

ঘন্টাব্যাপি এই সমাবেশে সংগঠনটির জেলা সভাপতি অনুপম মনির সভাপতিত্বে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব প্রফেসর মনতোষ কুমার দে, জেলা মুক্তি যোদ্ধা কমান্ড বদরুদ্বোজ্জা বদর, সাংস্কৃতিক জোটের সাধারন সম্পাদক পার্থ সারথী দাস, গণসংগীত মঞ্চের সভাপতি মোজাম্মেল হক বাবলু, সাধারন সম্পাদক মুসা রাখাল, নিশ্চিন্তপুর থিয়েটারের সভাপতি রাশেদুল আলম লিটন, সাধারন সম্পাদক নূর আলম উজ্বল,

শাপলা নাট্য গোষ্ঠির সভাপতি রুপকুমার গুহ, সাধারন সম্পাদক আলমগির হুসাইন, তারুণ্য একডেমির প্রীতি গাঙ্গুলী, বটমূল শিল্পী গোষ্ঠীর সাইফুল আলম বাবু, গ্রিন থিয়েটারের সাধারন সম্পাদক মামুনর রশিদ, সপ্তধ্বণী সংগীত বিদ্যালয়ের ধীরেন্দ্র রায়, বাউল ছানোয়ার হোসেন ছানু, প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলি সহ জেলার বিভিন্ন নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং সাংস্কৃতিক কর্মীরা অংশ গ্রহণ করেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আজকে বাংলাদেশ যখন বিভিন্ন সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে তখন ৭১এর পরাজিত শক্তি পাকিস্তানের প্রেত্মাতারা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার যে হুমকি তা আর কিছু নয়, সেটা এই দেশ ,দেশের মানুষ ও বাঙ্গালী সংস্কৃতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

এই ষড়যন্ত্র রুখতে সারাদেশের শিল্পীরা প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে উঠেছে। তাই অবিলম্বে এই ষড়যন্ত্রকারিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। তা না হলে এই মৌলবাদ ও ধর্মান্ধ অপশক্তি আবারো মাথাচাড়া দিয়ে উঠে এদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও সংস্কৃতিকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার সাহস পাবে।