বদলগাঁছী উপজেলায় ৫ কোটি ২১লক্ষ ২৭৭ টাকার ব্রিজ নির্মাণ , কিন্তু যোগাযোগের কোন রাস্তা নেই

162
বদলগাঁছী উপজেলায় ৫ কোটি ২১লক্ষ ২৭৭ টাকার ব্রিজ নির্মাণ , কিন্তু যোগাযোগের কোন রাস্তা নেইভ ছবি-বুলবুল

সুপ্রভাত বগুড়া (বুলবুল আহম্মেদ ( বুলু) বদলগাঁছী নওগাঁ) প্রতিনিধি: বদলগাছিতে ৯০ মিটার সিসি গার্ডার ব্রিজের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করলেও সংযোগ রাস্তার কাজ করছে না ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এতে এলাকাবাসিকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বৃহত্তর রাজশাহী জেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার পাশ দিয়ে প্রবাহিত ছোট যমুনা নদীর উপর কাদিবাড়ী ঘাটে একটি ৯০,১৫ মিটার পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করে, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)।

ব্রীজটি নির্মাণের প্রাক্কলিত মূল্য ৫ কোটি ২১ লক্ষ ২৭৭ টাকা, চুক্তি মূল্য ৪ কোটি ৬৮ লাখ ৯০ হাজার ২৪৯ টাকা ব্যয়ে এই পিসি গার্ডার ব্রীজটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৭ ইং সালের অক্টোবর মাসে। নির্মাণ কাজ সমাপ্তির সময় ছিল ২০১৯ ইং সালের মার্চ মাসে। কিন্তু ঠিকাদারের অবহেলায় নির্মাণ কাজ এখন পর্যন্ত শেষ হয়নি। আর এ কারণে এলাকাবাসী পড়েছে চরম বিপাকে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি ৯০ মিটার পিসি গার্ডার ব্রিজের কাজ সম্পন্ন করলেও সংযোগ রাস্তার কাজটি এখনো সমাপ্ত করেননি।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইথেন পি,এমপিএল জেভি এর সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ শেষ করা হয়েছে। শুধু দুপাশে সংযোগ রাস্তাটি করা বাকি রয়েছে। তবে সেই সংযোগ রাস্তার কাজটিও এতোদিনে শেষ করা হতো। কিন্তু এলাকাবাসী রাস্তায় মাটি ফেলাতে বিভিন্নভাবে বাধা দিয়েছে, এর কারণে কাজ করতে সমস্যা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ব্রিজের উচ্চতা অনুসারে মাটি ফেলতে হবে। এতে করে ওই এলাকার সাধারণ মানুষের জমিতে গিয়ে মাটি পড়বে। আর সেই জমিতো সরকারিভাবে একোয়ার করা হয়নি।

কিছুদিন আগে বৃষ্টির কারণে নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ও এলাকার মাঠ-ঘাট ডুবে যাওয়ার কারণে মাটি পাওয়া যায়নি। জমির মালিকরা সংযোগ রাস্তা করতে যদি বাধা না দেয় তাহলে আমি দ্রুত কাজটি সম্পন্ন করে দিবো বলে জানান তিনি। স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগ নওগাঁ জেলা এলজিইডি সূত্রে জানা যায়, করোনাকালীন সময়ে নির্ধারিত সময়সীমার চাইতে সময় বেশী লেগেছে এর জন্য মেয়াদ বাড়ানোর জন্য কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে। নির্মাণ কাজ কিছু বাকী রয়েছে।

যে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে কাজ করা হচ্ছে, সেই প্রকল্পের কাজ শুরুর আগে এলাকাবাসীর সাথে বসে মিটিং করা হয়। সেই মিটিং এ এলাকাবাসীকে আমরা বলেছিলাম ব্রীজ হবে কিন্তু সংযোগ রাস্তাটি তৈরি করতে জায়গা জমি দিতে হবে এবং সেই সময় জমি দিতে তারা রাজি হয়েছিলো। পরে ব্রীজ নির্মাণ হওয়ার পরে জমি দিতে রাজি হয়নি এলাকাবাসী। তারপরেও আমরা এলাবাসীর সাথে মিটিং করে দ্রুত সংযোগ রাস্তার কাজটি শেষ করার চেষ্টা চালাচ্ছি।

বদলগাছী উপজেলা প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান বলেন, কাদিবাড়ী ঘাটে ছোট যমুনা নদীর ওপরে গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। ব্রিজের দুপাশে রাস্তা সংযোগের কাজ করার জন্য এলাকাবাসীর সাথে কথা বলা হয়েছে। ব্রিজের দুপাশে দ্রুত সংযোগ রাস্তার কাজটি শেষ হবে এবং এলাকাবাসী এই চরম দুভোগ থেকে মুক্তি পাবে বলে তিনি মনে করেন।