“মানুষ মানুষের জন্যে”- যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ !!

137
"মানুষ মানুষের জন্যে"- যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ !!-সুপ্রভাত বগুড়া
স্টাফ রিপোর্টার: ভুপেন হাজারিকার সেই বিক্ষ্যাত গানের লাইন থেকেই বলতে হয় ” মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভুতি কি মানুষ পেতে পারে না ও বন্থু ! সাধারণত তিনমাথা থেকে সাতমাথা গামী প্রত্যেকটি যাত্রীরই জানা এবং মোটামুটি বগুড়া শহরের অধিকাংশ লোক জানেন শহরের কামারগাদী এলাকায় “করোতোয়া” মাল্টিমিডিয়া স্কুলের সামনে ঠিক উত্তর পার্শ্বে রাস্তায় অবস্থান নেয়া এই ব্যাক্তিটির কথা।
মাঝে মাঝেই দেখা যায় লোকটি কখনও কাপড় পড়ে, কখনও অর্ধ উলঙ্গ, আবার কখনও সম্পূর্ণ উলঙ্গ হয়ে রাস্তায় বসে থাকেন। অনেক সময়ই দু’একজন দয়া করে হয়তো কিছু খাবার দেন আবার অনেকেই পলিথিন টাঙ্গিয়ে তার জন্য সেই স্থানে একটু আরামের ব্যবস্থা করেন।
সাধারণের ধারণা হয় তো লোকটা পাগল হয়ে থাকতে পারে। কিন্তু, এই ব্যক্তির এমন জীবন যাপনে অনেক মা-বোনেরা রাস্তায় চলতে গিয়ে পড়ছেন বিব্রতকর অবস্থায়। আবার শহরের এমন একটি ব্যস্ততম রাস্তায় এভাবে থাকাটা অনিরাপদ। জানাগেছে, গতরাত অনুমান ভোর ৩.৩০ মিনিটে এই ব্যাক্তিটি একদম উলঙ্গ অবস্থায় রাস্তার মধ্যে এসে বসে ছিলো। বিষয়টি অনেক বেশি ভয়ানক! যে কোন মুহুর্ত্বে ঘটতে পারতো বড় থরণের দুর্ঘটনা।
বিষয়টি নজরে আসে জাতীয় শ্রমিকলীগ-যুব কমিটি বগুড়া জেলা শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রায়হানুর রহমান রোহানের। এর পর ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় অনেক কষ্টের পর “করতোয়া”কুরিয়ার সার্ভিসের গেটম্যান এর সহোযোগিতায় তাকে রাস্তা থেকে তার নির্দিষ্ট ঘরে পৌছে দেয়া হয়।
কিন্তু, এই সমস্যাটি সমাধানে বগুড়ার সুযোগ্য মাননীয় জেলা প্রসাশক ও মাননীয় পলিশ সুপার মহোদয় এর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এবং বগুড়ায় বিভিন্ন মানবিক উন্নয়ন সংস্থার কাছে বিশেষ অনুরোধ থাকবে আপনারা সব সময়ই অসহায়ের পাশে এসে দাঁড়ান। এই ব্যক্তিও আমাদের সমাজেরই একজন।
তাই দয়া করে রাস্তার মাঝে পড়ে থাকা এই ব্যাক্তির  একটি সু-ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। তা না হলে যে কোন সময় একটি বড় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। এতে ব্যাক্তি টি মারা যেতে পারে অথবা তাকে রক্ষা করতে গিয়েও সাধারণ জনগন ও পথচারীগণ বিড়ম্বনায় পড়তে পারেন ।