মৃতের সংখ্যায় ইতালিকেও ছাড়িয়ে গেল মেক্সিকো

83
মৃতের সংখ্যায় ইতালিকেও ছাড়িয়ে গেল মেক্সিকো ছবি-সংগ্রহ

সুপ্রভাত বগুড়া (আন্তর্জাতিক): দুইদিন আগে সংক্রমণে ব্রিটেনকে ছাড়িয়ে যাওয়ার পর এবার মৃতের সংখ্যায় ইউরোপের আরেক দেশ ইতালিকেও ছাপিয়ে গেল মেক্সিকো।

তবে এদিন দেশটিতে সর্বনিম্ন প্রাণহানির রেকর্ড হয়েছে। তারপরও মৃত্যুর মিছিল বেড়ে ৩৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে। মেক্সিকোর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডমিটারের তথ্য বলছে,

গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৪৮২ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ মিলেছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৭৫০ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে আরও ২৭৬ জনের।

এ নিয়ে দেশটিতে প্রাণহানি ৩৫ হাজার ৬ জনে ঠেকেছে। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে আগের তুলনায় বেড়েছে মৃতের হার। দুই সপ্তাহ আগে যেখানে ছিল ১৪ শতাংশ সেখানে তা বেড়ে হয়েছে ১৬ শতাংশ।

অপরদিকে কমেছে সুস্থতার হার। একই সময়ে ৮৬ থেকে ৮৪ শতাংশে নেমেছে বেঁচে ফেরা। যার সংখ্যা ১ লাখ ৮৪ হাজার ৭৬৪ জন।

অপরদিকে, ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে করোনা প্রথম আঘাত হানা ইতালিতে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩৪ হাজার ৯৫৪ জনের। আক্রান্ত ২ লাখ ৪৩ হাজার।

এদিকে মেক্সিকোর চেয়ে মাত্র হাজারের বেশি আক্রান্ত স্পেনে। যে হারে হু হু সংক্রমণ ঘটছে তাতে আগামী ২৪ ঘন্টায় মাদ্রিদকে ছাড়িয়ে যাবে মেক্সিকো সিটি।

গত ১৮ মার্চ মেক্সিকোয় প্রথম করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। প্রথমদিকে তেমনটা সংক্রমণ না ছড়ালেও ক্রমান্বয়ে তা ভয়াবহ রূপ নেয়। ফলে প্রায় চার মাসে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৩৫ হাজার ছাড়াল।

মেক্সিকোর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জোসে লুইস আলোমিয়া বলেন, ‘দেশে যেভাবে সংক্রমণ হচ্ছে, তা শিগগিরই বাড়তে পারে। আরও পরীক্ষাকেন্দ্র চালুর চিন্তা করা হচ্ছে।’

বিশ্বে আক্রান্তের তালিকায় মেক্সিকো এখন ৮ নম্বরে। আর প্রাণহানিতে দিক থেকে চারে। তবে, লাতিন আমেরিকার মধ্যে দ্বিতীয়। সবার ওপরে ব্রাজিল।

সময় যত গড়াচ্ছে পরিস্থিতি আরও সংকটের দিকে যাচ্ছে দেশটিতে। বিশ্বে মৃত্যুর দিক দিয়ে প্রথম তিনটি দেশ হলো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও যুক্তরাজ্য।

এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু ১ লাখ ৩৮ হাজার ছুঁই ছুঁই। আর ব্রাজিলে ৭২ হাজারের বেশি। বাংলাদেশ সময় সোমবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী,

বিশ্বে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ১ কোটি ৩০ লাখ ২৮ হাজারের বেশি। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের তালিকায় যুক্ত হয়েছে বিশ্বের ১ লাখ প্রায় ৯৫ হাজার মানুষ।

একইসময়ে প্রাণ গেছে ৩ হাজার ৯৫৬ জনের। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ৭১ হাজারে ঠেকেছে। এর মধ্যে সুস্থতা লাভ করেছেন প্রায় ৭৬ লাখ ভুক্তভোগী।