রোগীদের বাধ্য করা হচ্ছে নিজস্ব ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য

54
রোগীদের বাধ্য করা হচ্ছে নিজস্ব ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য। ছবি-এম রাসেল

সুপ্রভাত বগুড়া (এম রাসেল আহমেদ জয়পুরহাট): জয়পুরহাট আধুনিক সদর হাসপাতালে জয়পুরহাট শহর ও আশপাশে জেলার উপজেলা গুলোর অসংখ্য রোগী এখানে চিকিৎসা গ্রহন করেন।হাসপাতাল সহ ক্লিনিক গুলোতে এর চিকিৎসা চলে।

হাসপাতালে অধিকাংশ ডাক্তার বিভিন্ন ক্লিনিক গুলোর নিজেরাই পার্টনার বলা মালিক। তাই হাসপাতালে চেয় ক্লিনিক গুলোর প্রতি তাদের আন্তরিকতা অনেক বেশি। তারা রোগীদেরকে বিভিন্নভাবে নিজেদের ক্লিনিক বা ডাইগনষ্টিক সেন্টারে চিকিৎসা গ্রহনের পরামর্শ দেন উৎসাহিত করেন।

এখন সবচেয়ে বড় সমস্যা রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা তারা নিজ প্রতিষ্ঠানে করানোর জন্য সুপারিশ করেন এবং তাদের ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে পরীক্ষা না হলে সেই কাগজপত্র ফেলে দেন এবং রোগীদের সাথে খারাপ আচরণ করেন।

এই ভার্চুয়াল জগতে হয়তো তাদের কথোপকথন সহ এই অভিযোগগুলো আসতে থাকে কিন্তু অভিযোগ করলেও কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়না। তাই রোগীদের অভিযোগ বিবেচনায় বিষয়গুলো যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

অন্যথায় তাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ঘটনার কারণে হাসপাতাল নিয়ে সমালোচনার সৃষ্টি হতে পারে বলে মন্তব্য করেন  রোগী কল্যাণ  সমিতির  কার্যনির্বাহী সদস্য তিতাস মোস্তফা।  তিনি আরও বলেন, অনেক গুণী ডাক্তার আছেন যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত নয় তাদের কারণে এই গুণী ডাক্তারদের গায়ে কাদা লাগতে পারে।

জয়পুরহাট হাসপাতাল আমাদের অহংকার এর জায়গা। রোগী কল্যাণ সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ আমার নৈতিক দায়িত্ব বলে মনে করেনতিনি।