শেষ হয়েছে সাহেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ

25

সুপ্রভাত বগুড়া ডেস্ক: অস্ত্র মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে। আগামীকাল বুধবার মামলার আত্মপক্ষ সমর্থনের শুনানির দিন ঠিক করেছেন আদালত। ঢাকা মহানগরের এক নম্বর স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েস এই আদেশ দেন। এ নিয়ে মামলায় ১৪ জনের মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হলো। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ সাক্ষ্য গ্রহণ সমাপ্ত ঘোষণা করে।

আদালত সূত্র অনুযায়ী, আজ মঙ্গলবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক সাইরুল ইসলাম এবং মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবির ইয়াসির আহসান চৌধুরী সাক্ষ্য দেন। এর আগে সাহেদকে কারাগার থেকে ঢাকার আদালতে হাজির করা হয়। গত ৭ জুলাই উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত। হাসপাতাল থেকে ভুয়া করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় র‍্যাব বাদী হয়ে সাহেদসহ ১৭ জনের নামে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে।

মামলা করার আট দিনের মাথায় সাহেদকে সাতক্ষীরা থেকে গত ১৫ জুলাই গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। পরে হেলিকপ্টারে করে তাকে ঢাকায় আনা হয়। পরদিন ১৬ জুলাই ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত সাহেদকে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর তাকে নিয়ে উত্তরায় অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। অভিযানে গিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করা হয়। ৩০ জুলাই উত্তরা পশ্চিম থানায় করা অস্ত্র মামলায় সাহেদের বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। ২৭ আগস্ট অস্ত্র মামলায় সাহেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত।