সোনাতলায় ভাংচুর-লুটপাট মামলার আসামি জামিনে এসে বাদিকে হুমকীর অভিযোগ

162


সুপ্রভাত বগুড়া (খাজা রতন): বগুড়ার সোনাতলায় বসতবাড়িতে হামলার পর সীমানা দখল করে নেওয়ার মামলার এক আসামী জামিনে এসে পুনরায় বাদিকে হুমকী দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রবিবার ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সোনাতলা উপজেলার গোসাইবাড়ী গ্রামে জমি জমার বিরোধ নিয়ে মোছাঃ পারভীন বেগমের বসতবাড়ীতে হামলা চালায় বিবাদীগন। 

এ ঘটনায় মোছাঃ পারভীন বেগম বাদি হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাতলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে ও সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, গত ২৮ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সোনাতলা উপজেলার গোসাইবাড়ী গ্রামে জমি জমার বিরোধ নিয়ে মোছাঃ পারভীন বেগমের বসতবাড়ীতে হামলার অভিযোগে একই গ্রামের মোঃ ইনছান আলীর ছেলে মোঃ মিনারুল ইসলাম (৩৩),

তার ভাই মোঃ ফারুক মিয়া (৩৫) ও মোঃ মোনাহার (৪০), মোঃ ওয়াহেদ আলীর ছেলে মোঃ মিম (২২), মোঃ মুন্নু মিয়ার ছেলে মোঃ মহব্বত আলী (২১), মৃত জিলে প্রাং এর ছেলে মোঃ তাজুল (৪১), মৃত আকিম উদ্দিনের ছেলে মোঃ এমদাদুল (৫২),

মোঃ দুলু মিয়ার ছেলে মোঃ মিঠু মিয়া (৩০), মৃত আব্দুলের ছেলে মোঃ লেবু (২৫), মৃত নইবরের ছেলে মোঃ দুলা মিয়া (৪৫) ও মৃত আব্দুলের ছেলে মোঃ আপেল মিয়ার নামে সোনাতলা থানায় মামলা করেন (মামলা নং-১৯/ তারিখ ২৮/৪/২০২০ ইং) ।

উক্ত মামলার প্রেক্ষিতে সোনাতলা থানার এসআই মুস্তাফিজ ১লা মে দিবাগত রাতে মামলার ২নং ফারুক মিয়া(৩৫) কে গ্রেফতার করে ২ তারিখে জেল হাজতে প্রেরন করেন।

আসামী ২ তারিখে জামিনে এসে পুনরায় হুমকী ধামকী দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মামলার বাদী মোছঃ পারভীন বেগম।তিনি আরও জানান অনান্য আসামীরা আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে। আসামীরা প্রভাবশালী হওয়ায় এখন তারা (বাদী) নিরাপত্তা হীনতায় ভুগতেছেন।

এ বিষয়ে জিঙ্গাসা করলে সোনাতলা থানার এসআই মুস্তাফিজ জানান, প্রসাশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। বাদীর ভয় পাওয়ার কিছু নেই। অনান্য আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলতেছে।