হাসপাতাল খুঁজতে খুঁজতে অক্সিজেন শেষ, করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন চিকিৎসক !!

88
হাসপাতাল খুঁজতে খুঁজতে অক্সিজেন শেষ, করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন চিকিৎসক !! ছবি-সংগৃহীত

এ বিড়ম্বনার শেষ কোথায় !

সুপ্রভাত বগুড়া (প্রচ্ছদ): করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে বরিশালে প্রথম একজন চিকিৎকের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ঢাকার বাড্ডা এলাকার একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বরিশালের স্বনামধন্য চিকিৎসক ডা. মো. আনোয়ার হোসেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৫ বছর। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। বরিশালের বেসরকারি রাহাত-আনোয়ার হাসপাতালের চেয়ারম্যান ছিলেন অর্থপেডিক সার্জন আনোয়ার।

তার ভাই দেলোয়ার বলেন, আনোয়ার রোববার রাতে প্রথম অসুস্থবোধ করেন। সোমবার সকাল থেকে তার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বিকেলে তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়।

প্রথমে নেওয়া হয় স্কয়ার হাসপাতালে। কিন্তু বেড খালি না থাকায় ফিরে যেতে হয়। “এরপর নেওয়া হয় সিকদার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেও একই অবস্থা। এদিকে তার অবস্থার দ্রুত অবনতি হয়।”

পরে তাকে ঢাকার বাড্ডা এলাকায় এএমজেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ৩টার দিকে মারা যান আনোয়ার। দেলোয়ার আরও জানান, মহামারীর মধ্যে আনোয়ার নিজে রোগীদের নিয়মিত চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছিলেন।

রোববার রাতে অপারেশন থিয়েটারে চিকিৎসা কাজে থাকার সময় তিনি প্রথম অসুস্থবোধ করেন। আনোয়ারের পারিবারিক বন্ধু আইনজীবী লস্কর নূরুল হক বলেন, “চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আনোয়ারের করোনাভাইরাসের উপসর্গ ছিল।

তার পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে।” মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাহাত-আনোয়ার হাসপাতালের সামনে এই চিকিৎসকের জানাজা হয়।

দুপুরে গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠীর বিনয়কাঠী ইউনিয়নের নাকতা গ্রামে আবার জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে আইনজীবী লস্কর জানান।জানাজা ও দাফনে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন সহযোগিতা করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।