হোস্টেল মালিক সজীবের প্রতারণার শিকার ঠাকুরগাঁওয়ে  এক শিক্ষার্থী!

36
হোস্টেল মালিক সজীবের প্রতারণার শিকার ঠাকুরগাঁওয়ে  এক শিক্ষার্থী!। ছবি-আলমগীর

সুপ্রভাত বগুড়া (আলমগীর ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি): করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রকোপে বাংলাদেশের ছাত্রদের জীবন যেখানে থমকে দাঁড়িয়েছে, সেখানে অভিনব পদ্ধতিতে হোস্টেল পরিচালকরা সাধারণ ছাত্রদের সাথে হোস্টেলের ভাড়া আদায় নিয়ে প্রতারণা শুরু করেছে। এমনই ঘটনা ঘটেছে রাজধানীর ফার্মগেটের পূর্ব তেজতুরি এলাকায়। সজীব হোস্টেলের পরিচালক ‘সজীব ছাত্রদের থেকে ভাড়া ও অনন্য বিল আদায় করার পরও ছাত্ররা গ্রামের বাড়িতে থাকাতে ছাত্রদের না জানিয়ে তাদের সিট অন্য মানুষকে ভাড়া দিয়েছে।

প্রতারণার শিকার ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী সাদিক শাহারিয়া জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের শুরুর দিকে মার্চ মাসে যখন কলেজ বন্ধ ঘোষনা করা হয় তখন তিনি তার গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে চলে যায়। তিনি বলেন, দীর্ঘ ৫ মাস বাড়িতে থেকেও নিয়মিতভাবে হোস্টেলের ভাড়া ও অনন্য বিল পরিশোধ করেছি। কিন্তু তিনি আজ একটা বিশেষ কাজে ঢাকায় আসাতে তার মেসে গিয়ে দেখতে পায় সার্টিফিকেট, কলেজের ফরম ফিলাপের কাগজ, মোটর বাইকের নিবন্ধন, ও অনন্য গুরুত্বপূর্ণ জিনিস পত্র ছুড়াছুড়ি অবস্থায় ডাস্টবিনে পড়ে আছে।

সাদিক শাহারিয়া আরও বলেন, এ বিষয়ে হোস্টল পরিচালক সজীবের সাথে কথা বললে তিনি আমাকে বলে তার একটা কাজ আছে তিনি আসতে পারবে না এবং আমাকে চলে যেতে বলে। ভাড়া আদায় ও ছাত্রের অনুপস্থতিতে সিট ভাড়া দিয়েছে এ বিষয়ে হোস্টল পরিচালক সজীবের কাছে কল করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার ১ মাসের ভাড়া বাকি আছে এবং আমি এই হোস্টলের পরিচালক আর আমার যা ইচ্ছা আমি তাই করবো তাতে আপনাদের সমস্যা কি ? এবং এই প্রতিবেদক, ভুক্তোভোগী শিক্ষার্থী সাদিক শাহারিয়াকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।