করোনা’র সাথে খাপ খাইয়ে বিশ্ববাসীর জীবন ও জীবিকা রক্ষা করতে হবে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

86

সুপ্রভাত বগুড়া ডেস্ক: বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সাথে খাপ খাইয়ে  বিশ্ববাসীর জীবন ও জীবিকা রক্ষা করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এশিয়া অঞ্চলের প্রধান তাকেশি কাসাই।

বৃহস্পতিবার (১৪ মে) আন্তর্জাতিক ইকোনমিক ফোরামের সাথে এক ভার্চুয়াল সম্মেলনেতিনি এ কথা বলেন।তিনি বলেন, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে অর্থনীতি ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে, এমন একটি বিতর্ক চলছে।

এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশের সরকার, সংগঠন ও ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে অর্থনীতি  চালু রাখার পাশাপাশি মানুষের জীবন রক্ষা করার দায়িত্বও নিতে হবে। এর কারণ, পৃথিবীতে যতদিন ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থাকবে এবং কোন প্রতিষেধক আবিস্কার না হবে ততদিন সবাই ঝুঁকি রয়েছে।

এ পরিস্থিতিতে, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে নতুন করে বাঁচার পদ্ধতি বেছে নিতে হবে।জীবিকার জন্য মানুষের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিলে হবেনা। যেসব দেশে  কড়াকড়ি শিথিল করেছে, সেখানে নতুন করে প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।

সামাজিকভাবে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে ভাইরাসের সংক্রমণ।এমন, পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলোতে রোগীদের রাখার জায়গার দেয়া যাচ্ছিল না।

তিনি আরও বলেন, ভাইরাসের কারণে বিশ্বে তিন লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।আক্রান্ত হয়েছে ৪০ লাখ মানুষ।

লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল করলে এই সংখ্যা আরো বাড়বে। এক্ষেত্রে আমাদের জীবন বা জীবিকা যেকোন একটা বেছে নিতে হবে।বিধিনিষেধ শিথিল করার আগে আমাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

ভাইরাসের কারণে আমাদের জীবনে নাটকীয় পরিবর্তন এসেছে।ধ্বংস হয়ে গেছে অর্থনীতি। বন্ধ হয়ে গেছে দোকান-পাট ব্যবসা-বাণিজ্য। 

এমনকি মানুষ ঘর থেকে পর্যন্ত বের হতে পারছেনা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, ওর্য়াল্ড ইকোনমিকফোরামের পরিচালক অ্যাড্রিয়ান মংক।এসময়, বিভিন্ন অঞ্চলের একাধিক আলোচক অংশ নেন।